১৮ই নভেম্বর, ২০১৮ ইং শোকের ছায়া নেমে এসেছে ওপার বাংলায়ও
Mountain View

শোকের ছায়া নেমে এসেছে ওপার বাংলায়ও

0
image_pdfimage_print

নিউজবিডি৭১ডটকম
ঢাকা : বাংলা ব্যান্ড সংগীতের কিংবদন্তি শিল্পী, গিটারবাদক আইয়ুব বাচ্চুর মৃত্যুতে শোকের ছায়া নেমে এসেছে দেশের আপামর শ্রোতা দর্শকের মনে। শুধু বাংলাদেশ নয়, পশ্চিমবঙ্গের শিল্পীরাও স্তম্ভিত আইয়ুব বাচ্চুর আকস্মিক এই মৃত্যুর খবরে।

তাৎক্ষণিকভাবে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে পশ্চিমবঙ্গের শিল্পীরা স্মরণ করেছেন কিংবদন্তি আইয়ুব বাচ্চুকে। জানাচ্ছেন শোক আর শ্রদ্ধা।

সঙ্গীতশিল্পী রূপম ইসলাম লিখেছেন, ‘কী হচ্ছে গতকাল থেকে? গতকাল পৌলমী, (কবি পৌলমী সেনগুপ্ত) আজ বাচ্চু (আইয়ুব বাচ্চু) ভাই… আর কী কী দুঃসংবাদ শুনতে হবে?’

আইয়ুব বাচ্চু কেন অসময়ে চলে গেলেন এমন অনুযোগ জানিয়ে বাচ্চুর গান থেকেই রুপম লেখেন, ‘সেই তুমি কেন এত অচেনা হলে!’

রূপম আরো লেখেন, ‘স্মরণ করছি। ফিরে দেখছি আমাদের শেষ সাক্ষাৎকার। আমার বাড়িতে। অনেক পরিকল্পনা হয়েছিল এরপর। কিছুরই বাস্তবায়ন হলো না। শ্রদ্ধা।’

ভারতের আরেক জনপ্রিয় গায়ক, গীতিকার ও সুরকার অনুপম রায় লিখেছেন, ‘বাচ্চু ভাইয়ের (আইয়ুব বাচ্চু) এভাবে হঠাৎ করে চলে যাওয়াটা মেনে নেওয়া কঠিন। বাংলা গান চিরদিন মনে রাখবে এই চমৎকার গুণী মানুষটিকে।’

এরপর পোস্টে হ্যাশ ট্যাগ দিয়ে অনুপম ‘আইয়ুব বাচ্চু’ ও তাঁর বিখ্যাত গান ‘সেই তুমি’র কথা স্মরণ করেন।

জনপ্রিয় উপস্থাপক ‘মীরাক্কেল’খ্যাত মীর আফসার আলী ফেসবুকে লেখেন, ‘নবমীতে বিসর্জন… বাচ্চু (আইয়ুব বাচ্চু) ভাই চলে গেলেন। ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন।’

২০১৬ সালের নভেম্বরে দুবাইয়ে অনুষ্ঠিত এক কনসার্টের কথা স্মরণ করে মীর আরো লেখেন, ‘আবার দেখা হওয়ার আগ পর্যন্ত সে স্মৃতি আমাদের মাঝে অমলিন থেকে যাবে বাচ্চু ভাই।’

আজ বৃহস্পতিবার সকালে বাসায় অসুস্থ হয়ে পড়লে স্কয়ার হাসপাতালে নিয়ে আসা হয় আইয়ুব বাচ্চুকে। তখন তিনি অচেতন ছিলেন। চেষ্টা সত্ত্বেও তাঁকে আর ফিরিয়ে আনা যায়নি বলে জানায় হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ।

স্কয়ার হাসপাতালের পক্ষ থেকে সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলেন হাসপাতালের পরিচালক মির্জা নাজিমুদ্দিন। তিনি বলেন, ‘সকাল সাড়ে ৮টার দিকে হার্ট অ্যাটাক হয় আইয়ুব বাচ্চুর। বাসাতেই সেটা হয়। ৯টা ৫৫ মিনিটে তাঁর মৃত্যু হয়।’।

জনপ্রিয় ব্যান্ড এলআরবির দলনেতা আইয়ুব বাচ্চু ছিলেন একাধারে গায়ক, গিটারিস্ট, গীতিকার, সুরকার, সংগীত পরিচালক। ১৯৭৮ সালে তাঁর যাত্রা শুরু হয় ফিলিংস ব্যান্ডের মাধ্যমে। এরপর ১০ বছর সোলস ব্যান্ডে লিড গিটারিস্ট হিসেবে যুক্ত ছিলেন তিনি। আশির দশকে একাধিক একক অ্যালবাম বেরুলেও নব্বইয়ের দশকে ‘ডাবল অ্যালবাম’ দিয়ে এলআরবির যাত্রা শুরু হয়। তখন ব্যান্ডটির নাম ছিল ‘লিটল রিভার ব্যান্ড’। পরে ব্যান্ডের নাম পাল্টে রাখা হয় ‘লাভ রানস ব্লাইন্ড’।

১৯৬২ সালের ১৬ আগস্ট চট্টগ্রামে জন্মগ্রহণ করেন আইয়ুব বাচ্চু। ‘চলো বদলে যাই’, ‘ফেরারি মন’, ‘এখন অনেক রাত’, ‘হকার’, ‘আমি বারো মাস তোমায় ভালোবাসি’,‘বাংলাদেশ’সহ অসংখ্য জনপ্রিয় গানের স্রষ্টা তিনি। সঙ্গীতজগতে তিনি এবি নামে পরিচিত হলেও তাঁর ডাকনাম ছিল রবিন। এ নামেও তিনি নব্বইয়ের দশকে একক অ্যালবাম বের করেন।

নিউজবিডি৭১/বিসিপি/১৮ অক্টোবর, ২০১৮

Share.

Comments are closed.