১৪ই নভেম্বর, ২০১৮ ইং ফেসবুকে আপনিও হ্যাকের শিকার কিনা জানতে চাইলে
Mountain View

ফেসবুকে আপনিও হ্যাকের শিকার কিনা জানতে চাইলে

0
image_pdfimage_print

ডেস্ক রিপোর্ট
নিউজবিডি৭১ডটকম
ঢাকা : সাইবার হামলা এবং হ্যাকিংয়ের এই সময়ে দু’সপ্তাহ আগে ফেসবুকের ৩ কোটি ব্যবহারকারীর আইডি আক্রান্ত হয়েছে। ঝুঁকির মুখে পড়েছে বিশ্বের নানা প্রান্তের ফেসবুক ব্যবহারকারীর ব্যক্তিগত তথ্য, ইমেইল। ইতোমধ্যে ইমেইলে-ফেসবুকে দেখা যাচ্ছে সন্দেহজনক নানা ঘটনা।

এ অবস্থায় নিজের ফেসবুক অ্যাকাউন্টিও আক্রান্ত কিনা জানতে যা করতে পারেন:
১. লগইন করে ফেসবুকের এই হেল্প সেন্টার লিংকে ভিজিট করুন https://www.facebook.com/help/securitynotice?ref=sec

২. আইডি আক্রান্ত হয়েছে কিনা জানতে এখানে নিচের দিকে গিয়ে এই অপশন পাবেন ,‘Is my Facebook account impacted by this security issue?’
৩. এখানে আপনি ‘ইয়েস’ অথবা ‘নো’ উত্তর পেলে বুঝতে পারবেন আপনিও আক্রান্ত ৩ কোটির একজন কিনা।
৪. যদি ‘ইয়েস’ উত্তর দেখতে পান তাহলে আপনি হয়তো এই তিনটি ক্যাটাগরির একটিতে থাকবেন:
ক. আপনি সেই দেড় কোটি ফেসবুক ব্যবহারকারীর একজন যাদের নাম, ইমেইল এবং ফোন নম্বর আক্রান্ত হয়েছে।

খ. আপনি সেই ১ দশমিক ৪ কোটি ফেসবুক ব্যবহারকারীর একজন যার ইউজারনেম, জেন্ডার, ভাষা, রিলেশনশিপ স্ট্যাটাস, ধর্ম, হোমটাউন, জন্ম তারিখ, কোন হ্যান্ডসেট ব্যবহার করেন, শিক্ষা বিষয়ক তথ্য, সর্বশেষ যে দশটি জায়গায় গিয়ে চেকইন দিয়েছেন কিংবা ট্যাগড হয়েছেন সেই তথ্য এখন হ্যাকারের হাতে।

গ. আপনি সেই ১০ লাখ ফেসবুক ব্যবহারকারীর একজন যার অ্যাকসেস টোকেন চুরি হলেও সৌভাগ্যবশত সেটি দিয়ে আপনার অ্যাকাউন্টে অন্য কেউ প্রবেশ করতে পারেনি।

যদি ফেসবুক অ্যাকাউন্ট হ্যাক হয়ে থাকে, তাহলে যা করবেন
১. আপনাকে ফেসবুকের, ক্রেডিট কার্ডেে পাসওয়ার্ড বদলাতেই হবে এমন কোন কথা নেই। কারণ হামলার পর এখন পর্যন্ত ব্যক্তির স্পর্শকাতর তথ্য ভাণ্ডারে প্রবেশের কোন প্রমাণ পাওয়া যায়নি।
২. স্প্যাম, স্প্যামকল এবং ইমেইলের ব্যাপারে সতর্ক থাকুন, কারণ আপনার কন্টাক্ট এবং মেইল হ্যাকারের নাগালে এসে থাকতে পারে।

৩. ফিশিং চেষ্টার বিষয়ে সতর্ক থাকুন। কারণ আপনাকে ফাঁদে ফেলতে মেইল পাঠানো হতে পারে। এই মেইলে আপনাকে কোন কিছুতে লগইন, সাইনইন করতে বলা হতে পারে। আর এটা করলে আপনার তথ্য চুরি করা যাবে সহজেই। যদি কোন সন্দেহজনক মেইল আসে এবং আপনার মনে হয় এটা ফেসবুক থেকে এসেছে তাহলে যাচাই করতে এই লিংকে ক্লিক করুন: https://www.facebook.com/help/www/1956527391029758?helpref=faq_content
৪. আপনি যদি উপরের খ ক্যাটাগরির আক্রান্ত কেউ হন তাহলে আপনার ব্যাংক এবং স্মার্টফোনে অতিরিক্ত সিকিউরিটি লেয়ার যোগ করুন। কারণ হ্যাকারদের হাতে ইতোমধ্যে আপনার ছদ্মবেশে তথ্যে প্রবেশ করার প্রাথমিক সব উপকরণ চলে গেছে। তাই নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করুন।

নিউজবিডি৭১/আ/অক্টোবর ১৫, ২০১৮

Comments are closed.