১৬ই অক্টোবর, ২০১৮ ইং নির্বাচনে সব দলেরই অংশ নেওয়া উচিত: রাষ্ট্রপতি
Mountain View

নির্বাচনে সব দলেরই অংশ নেওয়া উচিত: রাষ্ট্রপতি

0
image_pdfimage_print

নিউজবিডি৭১ডটকম 
ঢাকা : রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ বলেছেন, রাষ্ট্রপতি হিসেবে আমি দলনিরপেক্ষ মানুষ। আমার কাছে সব দলই সমান। আমি মনে করি, আসন্ন জাতীয় নির্বাচনে সব দলেরই অংশ নেওয়া উচিত।

মঙ্গলবার কিশোরগঞ্জের ইটনা উপজেলায় রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ সরকারি কলেজ মাঠে এক গণসংবর্ধনায় দেওয়া বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

উপস্থিত লোকজনের উদ্দেশে রাষ্ট্রপতি বলেন, আপনারা ভোট দিয়ে অসৎ ও অযোগ্য কাউকে নির্বাচিত করবেন না। টিআর-কাবিখার কাজসহ যারা বিভিন্ন অনিয়ম-দুর্নীতিতে জড়িত, এমন নেতাদের বর্জন করুন।

তিনি বলেন, গত কয়েক দশকে বিভিন্ন সরকার ক্ষমতায় গেছে। যারা উন্নয়ন করেছে, দেশকে এগিয়ে নিয়ে গেছে, এমন দলের সৎ ও যোগ্য নেতাকে আপনাদের প্রতিনিধি নির্বাচিত করুন।

শিক্ষার্থীদের উদ্দেশে রাষ্ট্রপতি বলেন, গত কয়েক বছরে হাওরে ব্যাপক উন্নয়ন হয়েছে। এখন হাওরে বিদ্যুৎ ও রাস্তা হয়েছে। শহরের অনেক সুযোগ-সুবিধা হাওরে বিরাজমান। কিন্তু পড়াশোনায় হাওরের শিক্ষার্থীরা ভালো করছে না। তোমাদেরকে পরিশ্রম ও অধ্যবসায়ের মাধ্যমে জ্ঞান অর্জন করে বড় বড় শহরের শিক্ষার্থীদের সঙ্গে প্রতিযোগিতায় টিকে থাকতে হবে। এখন আর অজুহাত নেই। পড়াশোনার জন্য সব ধরনের সুযোগ-সুবিধা হাওরে রয়েছে।

আবদুল হামিদ বলেন, ইটনা উপজেলায় ধান গবেষণা ইনস্টিটিউট প্রতিষ্ঠার কাজ এগিয়ে চলেছে। হাওরে ভবিষ্যতে ফ্লাইওভারসহ আধুনিক সব ধরনের উন্নয়ন হবে। আমার জীবদ্দশায় দেখতে না পারলেও ভবিষ্যৎ প্রজন্ম তা ব্যবহার করবে।

ইটনা উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি ইসমাইল মিয়ার সভাপতিত্বে সভায় অন্যদের মধ্যে বক্তব্য দেন স্থানীয় এমপি রাষ্ট্রপতিতনয় প্রকৌশলী রেজওয়ান আহম্মদ তৌফিক, আফজল হোসেন, দিলারা বেগম, জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট জিল্লুর রহমান, জেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি অ্যাডভোকেট কামরুল আহসান, ইটনা উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান চৌধুরী কামরুল হাসান, জেলা কৃষক লীগের সাধারণ সম্পাদক আনোয়ার হোসেন বাচ্চু প্রমুখ। এ সময় উপস্থিত ছিলেন জেলা প্রশাসক সারওয়ার মুর্শেদ চৌধুরী, পুলিশ সুপার মাশরুকুর রহমান খালেদ, ইটনা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মশিউর রহমান ও সামরিক-বেসামরিক ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা।

এর আগে সকালে গাড়িতে করে অষ্টগ্রাম উপজেলায় নির্মাণাধীন বিভিন্ন প্রকল্প ঘুরে দেখেন রাষ্ট্রপতি। তিনি অষ্টগ্রাম-নোয়াগাঁও পরিদর্শনকালে এখানকার মানুষের সঙ্গে কুশল বিনিময় এবং ভাতশালা গ্রামে শিশুদের সঙ্গে কিছুক্ষণ সময় কাটান। এ সময় রাষ্ট্রপতির সঙ্গে ছিলেন স্থানীয় এমপি আফজাল হোসেন, উপজেলা চেয়ারম্যান শহীদুল ইসলাম জেমস, রোটারি ডিগ্রি কলেজের অধ্যক্ষ মোজতাবা আরিফ খান, অ্যাডভোকেট সৈয়দ শাহজাহান, অ্যাডভোকেট ফাইজুল হক হায়দারী বিপ্লব, ইউপি চেয়ারম্যান ফারুক আহাম্মদ, কাছেদ মিয়া, নারী নেত্রী সৈয়দা নাসিমা রীতা প্রমুখ।

নিউজবিডি৭১/বিসি/সেপ্টেম্বর ২৫, ২০১৮

Share.

Comments are closed.