১৬ই অক্টোবর, ২০১৮ ইং ফিফার বর্ষসেরা ফুটবলার মডরিচ
Mountain View

ফিফার বর্ষসেরা ফুটবলার মডরিচ

0
image_pdfimage_print

ডেস্ক রিপোর্ট
নিউজবিডি৭১ডটকম
ঢাকা : রোনালদো ফিফার বর্ষসেরা খেলোয়াড়ের পুরস্কার প্রদান অনুষ্ঠানে যান নি। তাতেই কিছু একটার আঁচ পাওয়া গিয়েছিল। সেরা তিনে ১১ বছর বাদে জায়গা পাননি লিওনেল মেসি। বর্ষসেরা ফুটবলার হিসেবে চ্যাম্পিয়নস লিগের ফাইনাল জেতা এবং বিশ্বকাপে ক্রোয়েশিয়াকে ফাইনালে তোলা লুকা মডরিচের নাম তাই বেশি উচ্চারিত হয়েছে। রোনালদো হাজির না হওয়ায় মোহামেদ সালাহর নামও শোনা গেছে। কিন্তু ২০১৮ সালের ফিফার ‘দ্য বেস্ট’ বা বর্ষসেরা ফুটবলার হয়েছেন লুকা মডরিচ।

মডরিচ এবার শুধু বর্ষসেরা ফুটবলারই হলেন না কেড়ে নিলেন মেসি-রোনারদোর ১০ বছরের সিংহাসন। গত ১০ বছরে হয়তো কেউ সেরা হতে পারেন এটা ভাবতেও ভয় পেয়েছেন। কিন্তু মডরিচ তাতে ছেদ ফেলালেন। হয়তো নতুন যাত্রার শুরু করলেন।

ফিফা ১৯৯১ সাল থেকে একজন করে বর্ষসেরা ফুটবলার বেছে নেয়। ২০১০ সাল থেকে ফ্রান্স ফুটবলের ব্যালন ডি’অরের সঙ্গে একীভূত হয় ফিফা। পুরস্কারের নাম দেয় ফিফা-ব্যালন ডি’অর। ২০১৬ সালে আবার আলাদা হয়ে যায় তারা। এরপর থেকে ফিফার পুরস্কারটা ‘দ্য বেস্ট’ নামে নতুন যাত্রা শুরু করে। তাতে প্রথম দু’বারই সেরা হন রোনালদো। সে হিসেবে দ্বিতীয় খেলোয়াড় হিসেবে ‘দ্য বেস্ট’ পেলেন ক্রোয়েশিয়া মিডফিল্ডার লুকা।

রিয়ালকে পরপর তিনটি চ্যাম্পিয়নস লিগ জেতানোর কাজটা গোল করে হয়তো রোনালদো-বেনজেমারা করেছেন। কিন্তু পেছনে কারিগর ছিলেন মডরিচ। প্রতিবারই বর্ষসেরা মিডফিল্ডারের তালিকায় থেকেছেন। কিন্তু বর্ষসেরাদের সংক্ষিপ্ত তালিকায় ঢুকতে পারেননি। এবার সামনে আনা হলো পেছনের কারিগরকে। তাকে মূলত সামনে এনেছে এবারের রাশিয়া বিশ্বকাপ।

বিশ্বকাপে ক্রোয়েশিয়াকে প্রথমবারের মতো ফাইনালে তুলেছেন, জিতেছেন সেরা খেলোয়াড়ের পুরস্কার। মাঝমাঠে তিনিই ছিলেন দলের প্রাণভোমরা। রিয়ালের হয়েও তাই। লিকলিকে শরীর নিয়ে পুরো মাঠ ছুড়ে বেড়ান। মাঝমাঠের কুশিলবকে তাই সেরা মনে হয়েছে নির্বাচকদের।

পুরুষ দলের সেরা কোচ হয়েছেন দিদিয়ের দেশম। ফ্রান্সকে ২০ বছর পর দ্বিতীয় বিশ্বকাপ এনে দিয়েছেন। কোচ এবং অধিনায়ক হিসেবে বিশ্বকাপ জিতে গড়েছেন কীর্তি। ফরাসি কোচের তাই পুরস্কারটা পাপ্য ছিল। বর্ষসেরা গোল, ‘পুসকাস অ্যাওয়ার্ড’ উঠেছে সালাহর হাতে।

ফিফার বর্ষসেরা একাদশ

ডেভিড ডি গিয়া (ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড), দানি আলভেজ (পিএসজি), রাফায়েল ভারানে (রিয়াল মাদ্রিদ), সের্গিও রামোস (রিয়াল মাদ্রিদ), মার্সেলো (রিয়াল মাদ্রিদ), লুকা মডরিচ (রিয়াল মাদ্রিদ), এনগোলো কান্তে (চেলসি), এডেন হ্যাজার্ড (চেলসি), কিলিয়ান এমবাপ্পে (পিএসজি), লিওনেল মেসি (বার্সেলোনা), ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো ( জুভেন্টাসে, সাবেক রিয়াল মাদ্রিদ)।

নিউজবিডি৭১/আ/সেপ্টেম্বর ২৫, ২০১৮

Share.

Comments are closed.