১৫ই অক্টোবর, ২০১৮ ইং চট্টগ্রামে ফাঁদে ফেলে ২ কিশোরীকে ধর্ষণ, গ্রেফতার ৬
Mountain View

চট্টগ্রামে ফাঁদে ফেলে ২ কিশোরীকে ধর্ষণ, গ্রেফতার ৬

0
image_pdfimage_print

নিউজবিডি৭১ডটকম
ঢাকা : চট্টগ্রাম নগরীর একটি বিপণি কেন্দ্রে ‘মোবাইল চুরির’ ফাঁদ পেতে দুই কিশোরীকে আটকে রেখে ধর্ষণের অভিযোগে ছয়জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

তারা হলেন আব্দুল আউয়াল ওরফে ডালিম (৩০), ফারুক (২৭), কবির (২৭), জাহাঙ্গীর আলম (২৪), বাবলু (২৮) ও সেলিম (৩৫)।

রোববার রাতভর ঘটনাস্থল নগরীর জলসা মার্কেট, পাথরঘাটা ও আলকরণ এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেফতার করা হয় বলে কোতোয়ালী থানার ওসি মো. মহসীন জানিয়েছেন।

তিনি বলেন, দুই কিশোরীর একজনের মা বাদি হয়ে ধর্ষণের অভিযোগে আটজনকে আসামি করে মামলা করেছেন। রুবেল (২৫) ও এনাম (২৬) নামে বাকি দুই আসামিকে খুঁজছে পুলিশ। আসামিরা সবাই জলসা মার্কেট এলাকার বিভিন্ন দোকানের কর্মচারি ও মালিক।

ওসি আরও জানান, দুই কিশোরীর ডাক্তারি পরীক্ষা ও চিকিৎসার ব্যবস্থা করা হয়েছে।

মামলার এজাহার থেকে জানা যায়, দুই কিশোরীর একজন আগে জলসা মার্কেটের একটি দোকানে চাকরি করত। সেখানকার পঞ্চম তলায় রাশেদ নামে এক ব্যক্তির মালিকানাধীন জয়ন্তী বোরকা হাউজে কর্মচারী নিয়োগ দেওয়া হবে জানতে পেরে রোববার এক বান্ধবীকে (১৬) সঙ্গে নিয়ে ওই কিশোরী (১৭) সেখানে যায়। ফেরার সময় রাশেদের দোকানের কর্মচারী ডালিম ও সেলিম নামে আরেক দোকানি মোবাইল ফোন চুরির জন্য সন্দেহভাজন হিসেবে ওই দুই কিশোরীকে ডেকে নিয়ে যায়। প্রথমে রাশেদের দোকানে এবং পরে সেলিমের দোকানে নিয়ে তাদের জিজ্ঞাসাবাদ করে তারা।

কোতোয়ালী থানার পরিদর্শক (তদন্ত্ম) কামরুজ্জামান বলেন, এরপর সালিশের কথা বলে দুই কিশোরীকে জলসা মার্কেটের নবম তলার ছাদে নিয়ে গিয়ে ধর্ষণ করে আসামিরা।

তিনি বলেন, সন্ধ্যার পরও দুই কিশোরী বাসায় না ফেরায় তাদের স্বজনরা খুঁজতে বের হন। পরে জলসা মার্কেট সমিতির লোকজনের সহায়তায় রাত সাড়ে ১০টার দিকে ছাদে তাদের খুঁজে পান পরিবারের সদস্যরা। খবর পেয়ে পুলিশ এসে তাদের হাসপাতালে নিয়ে যায়।

ডালিম এবং এনাম অন্য আসামিদের জলসা মার্কেটের ছাদে ডেকে নিয়ে যায় বলেও জানান এই পুলিশ কর্মকর্তা।

নিউজবিডি৭১/আ/সেপ্টেম্বর ২৪, ২০১৮

Share.

Comments are closed.