১৬ই অক্টোবর, ২০১৮ ইং ওদেরকে কি কখনো ভুলতে পারি?
Mountain View

ওদেরকে কি কখনো ভুলতে পারি?

0
image_pdfimage_print

নিউজবিডি৭১ডটকম

স্টাফ করসপনডেন্টঃ সাতক্ষীরা-৪ আসনের সংসদ সদস্য এস এম জগলুল হায়দার। লেখাপড়া, রাজনীতি, বেড়ে ওঠা সব গ্রামেই। সংসদ সদস্য হয়ে বেশির ভাগ সময় এলাকায় থাকেন। ছিলেন শ্যামনগর সদরের দু’বারের জনপ্রিয় চেয়ারম্যান। গ্রামে গ্রামে ঘুরে গরিব-অসহায় মানুষের সেবা করে বেড়ান। তাই কৃষক, শ্রমিক, দিনমুজুরসহ দরিদ্র-অসহায় সাধারন শ্রেণির মানুষদের মধ্যে অত্যন্ত জনপ্রিয় তিনি।

সোশ্যাল মিডিয়ায়ও সমানতালে জনপ্রিয় এই জনপ্রতিনিধি। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেইসবুকে তার ওয়ালে দেখা যায়, কৃষকদের সাথে নিয়ে লুঙ্গি গেঞ্জি পরিহিত অবস্থায় কখনো লাঙ্গল দিয়ে নিজে জমি চাষ করছেন। কখনো চাষ করছেন পাওয়ার টিলার দিয়ে। জমিতে বসে কৃষকদের সঙ্গে পিঁয়াজ-মরিচ দিয়ে পান্তা খেতে দেখা গেছে তাকে। আবার জমিতে ধানের চারা রোপনও করেন কোনো কোনো সময়। পোকা মাকড় দমনে জমিতে বিষও ছিটান।

প্রায়্ সময় কৃষকদের সঙ্গে নিয়ে চায়ের দোকানে বসে চা পান আর আড্ডায় মশগুল থাকতে দেখা যায় তাকে। আজ শুক্রবার তার ওয়ালে পোষ্ট করা ছবিতে দেখা যায়, এই জনপ্রতিনিধি নিজের জমিতে নিজ হাতে জৈব সার ছিটাচ্ছেন। কৃষকদের উৎসাহ যোগাতে তিনি তাদের সাথে কাজ করেন বলে জানা যায়।

এ বিষয়ে জগলুল হায়দারের কাছে জানতে চাইলে নিউজবিডি৭১ডটকমকে তিনি বলেন, আমি গ্রামের ছেলে। ছোট্টবেলায় এই কৃষকরাই আমাকে কোলে পিঠে মানুষ করেছে। ওদের কাছে পাইলে আমার অনেক ভালো লাগে। ওরা আমাকে সেই আগের মতো নাম ধরে ডাকে। কেউ বাবা বলে কেউবা চাচা। কেউবা মেজো ভাই, কেউবা খোকন বলে ডাকে।

তিনি আরো বলেন, ওরা যখন এই নাম ধরে আমাকে ডাক দেয় তখন আমার বুকটা গর্বে ভরে ওঠে। কেউ যখন আমাকে এমপি সাহেব অথবা স্যার বলে সম্বোধন করে তখন আমি খুব কষ্ট পাই। আমার মনে হয়, আমি তাদের ভালবাসার প্রিয় মানুষ হতে পারিনি। আমি তাদের থেকে অনেক দূরে সরে গিয়েছি। তাই আমি মেঝো ভাই অথবা খোকন অথবা বাবা-চাচা হয়েই তাদের মাঝে বাঁচতে চাই। সাহেব-স্যার হিসেবে নয়।

সাংসদ আরো বলেন, ওদের এই ডাক যে আমার কতো ভালো লাগে তা আপনাদের বুঝাতে পারবো না। সংসদ সদস্য হওয়ার পরেও তারা আমার কাছে সেই আগের মতো আছে। ওদের সঙ্গে সম্পর্ক এতটুকুও ছিন্ন হতে দেইনি। ওরাই দেশের ১৭ কোটি মানুষের মুখে অন্ন যোগায়। ওদেরকে কি কখনো ভুলতে পারি?

নিউজবিডি৭১/বিসিপি/২১ সেপ্টেম্বর, ২০১৮

Share.

Comments are closed.