১৮ই জুলাই, ২০১৮ ইং ‘অনুমতি না থাকায় সেমিনার করতে দেয়নি মির্জা ফখরুলকে’
Mountain View

‘অনুমতি না থাকায় সেমিনার করতে দেয়নি মির্জা ফখরুলকে’

0
image_pdfimage_print

নিউজবিডি৭১ডটকম
ঢাকা : বিএনপি সমর্থিত জিয়া পরিষদকে সেমিনার করতে দেয়নি পুলিশ। বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর এই সেমিনারে অংশ নিতে আসলেও তাকে ফেরত যেতে বলা হয়। যদিও পুলিশের পক্ষ থেকে বলা হচ্ছে, অনুমতি না থাকায় তাদের সেমিনার করতে দেওয়া হয়নি। তবে জিয়া পরিষদ দাবি করেছে, পুলিশ আগে মৌখিক অনুমতি দিয়েছিল।

আজ শনিবার বেলা সাড়ে ১০টার দিকে রাজধানীর ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউট সেমিনার হলে ‘নাগরিক অধিকার, আইনের শাসন এবং গণতন্ত্র বাংলাদেশে প্রেক্ষাপট’ শীর্ষক সেমিনারের আয়োজন করে জিয়া পরিষদ। এই সেমিনারে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখার কথা ছিল মির্জা ফখরুলের। কিন্তু সকাল ১১টার দিকে মির্জা ফখরুল অনুষ্ঠানস্থলে গেলে পুলিশ ‘অনুমতি নেই’ বলে তাকে সেমিনার না করতে দিয়ে ফিরিয়ে দেয়। সেমিনারও করতে দেওয়া হয়নি।

এসময় মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, ‘দেশে আজ ন্যূনতম গণতান্ত্রিক স্পেস নাই, মত প্রকাশের স্বাধীনতা নাই। আজ এখানে কোনও রাজনৈতিক দলের সমাবেশ নয়, অরাজনৈতিক একটি সংগঠনের সেমিনার ছিল। সেটাকেও এই সরকার করতে দেয়নি। আমি এর তীব্র নিন্দা ও ধিক্কার জানাচ্ছি।’

তিনি আরও বলেন, ‘এটা খুবই পরিতাপের কথা, ক্ষোভের কথা, দুর্ভাগ্যের কথা যে আজ বাংলাদেশ সরকারের পুলিশ বিভাগ, তারা একটা ভয়ঙ্কর দুঃশাসনের কাজ করছে, অত্যাচার-নির্যাতনের পথ বেছে নিয়েছে।’

এ বিষয়ে জানতে চাইলে রমনা জোনের ডেপুটি কমিশনার মারুফ হোসেন সর্দার বলেন, ‘কেউ আমাদের কাছ থেকে প্রোগ্রামের অনুমতি নেয়নি। আমরাও কাউকে প্রোগাম করার অনুমতি দেইনি। আমরা তো ইনডোর প্রোগ্রাম করার অনুমতি দিয়ে থাকি। কিন্তু বিএনপি বা অন্য কেউ রমনায় সেমিনার করার জন্য লিখিত বা মৌখিক অনুমতি নিতে আসেনি। এই কারণে হয়তো তাদের প্রোগ্রাম করতে দেওয়া হয়নি।’

জিয়া পরিষদের চেয়ারম্যান কবির মুরাদ বলেন, ‘পুলিশ আমাদের সেমিনার করার জন্য মৌখিক অনুমতি দিয়েছিল। কিন্তু আজ সকালে তারা সেমিনার করতে না দিয়ে ফিরিয়ে দিয়েছে। আমার মনে হয় পুলিশ ধারণা করেছিল সেমিনারে বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান লন্ডন থেকে বক্তব্য দেবেন। এই কারণে সেমিনার করতে দেয়নি। কিন্তু আমাদের সেমিনারে তার বক্তব্য দেওয়ার কথা ছিল না।’

জিয়া পরিষদের সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব আবদুল্লা হিল মাসুদ বলেন, ‘গত ২ জুলাই আমরা সেমিনার করার জন্য রমনা জোনের ডিসি মারুফ হোসেন সর্দারের কাছে লিখিত আবেদন করেছি। তখন তিনি আমাদের কিছু বলেননি। এর দুইদিন পরে ৪ তারিখে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেছিলেন, আপনারা কাজ চালিয়ে যান, আমরা ওপরের মহলে কথা বলছি। আর সেমিনারে কে কে থাকবেন তা জানতে চেয়েছিলেন তিনি। তখন বলেছিলাম, বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুলসহ দেশের বিভিন্ন জায়গা থেকে আমাদের প্রতিনিধিরা আসবেন।’

তিনি আরও বলেন, ‘আজ সকালে আমাদের শাহবাগ থানার উপপরির্দশক আফতাব সাহেব ফোন করে বলেন, আপনাদের সেমিনারের অনুমতি কোথায়। আপনারা এখানে সেমিনার করতে পারবেন না। তখন আমরা অনুমতির আবেদনের পত্র দেখালে তিনি রমনা জোনের ডিসির সঙ্গে যোগাযোগ করতে বলেন। কিন্তু ডিসি সাহেব আমাদের ফোন ধরেন নাই।’

নিউজবিডি৭১/আ/জুলাই ১৪ ,২০১৮

Share.

Comments are closed.