১৬ই ডিসেম্বর, ২০১৮ ইং মেসির টাকায় স্কুলে যায় সিরিয়ার যুদ্ধে ক্ষতিগ্রস্থ শিশুরা
Mountain View

মেসির টাকায় স্কুলে যায় সিরিয়ার যুদ্ধে ক্ষতিগ্রস্থ শিশুরা

0
image_pdfimage_print

ডেস্ক রিপোর্ট
নিউজবিডি৭১ডটকম
ঢাকা : হাজার হাজার শিশুর মুখে হাসি ফোঁটায় মেসি। মেসি শিশুদের জন্য আলাদা রকম ভালবাসার বহিঃপ্রকাশ । আর এজন্য নিরন্তর কাজ করে যাচ্ছে লিও মেসি ফাউন্ডেশন।বছরে ১০০ মিলিয়ন ইউরো আয় করেন মেসি ।

যার একোতা বড় অংশ ব্যয় হয় সারাবিশ্বের শিশুদের জন্য। ক্যান্সার আক্রান্ত শিশুদের জন্য মেসি নিজে নেমে পড়েন সহায়তার জন্য। শুধু যে মেসিই সহায়তা করেন তা নয়, তার আবেদনে এগিয়ে আসেন বিশ্বের নানা প্রান্তের মানুষ।মেসি, ফুটবল বিশ্ব যার পায়ের যাদু দেখেই অভ্যস্ত। কিন্তু একজন মানবিক মেসিকে গোটা বিশ্বের কতজন জানেন? মেসি তার আয়ের একোটা বড় অংশ শিশুদের পেছনে ব্য্যয় করেন। আর এজন্য মেসি গড়ে তুলেছেন মেসি ফাউন্ডেশন। ২০১৫ সালের কথা। ইউনিসেফের শিশু তহবিলে মেসি দান করে বসলেন বিশাল অংকের অর্থ। এই দানের পরিমাণ কত? ৪৫ লাখ আর্জেন্টিনিয়ান পেসো।

যুদ্ধবিধ্বস্থ সিরিয়ার বাচ্চারা স্কুলে যেতে পারে না। কারণ স্কুল নেই। স্কুলের চিহ্নটুকুও নেই। মেসি শুনলেন। শিশুদের জন্য প্রসারিত হৃদয় মেসির। মেসি বিভিন্ন স্কুলের ২০ টি অত্যাধুনিক ক্লাস রুম তৈরি করে দিলেন। প্রতিটি ক্লাসরুমে আধুনিক সকল সুবিধা ও আসবাব পত্র রয়েছে। এছাড়াও লিও মেসি ফাউন্ডেশন একশ’র ওপরে শিশুকে সরাসরি পড়াশোনার জন্য সহায়তা করছে।

সিরিয়ার যুদ্ধে ক্ষতিগ্রস্থ ১৬০০ শিশুর শিক্ষার দায়িত্ব নিয়েছে লিও মেসি ফাউন্ডেশন। শিশুদের মাসিক খরচের ৬০% বহন করবে এই ফাউন্ডেশন।শিশুদের জন্য মেসির এগিয়ে আসার উদাহরণ অবশ্য পুরনো। ক্যারিয়ারের শুরুর দিকে, ২০০৭ সালে সুবিধাবঞ্চিত শিশুদের শিক্ষা ও স্বাস্থ্য উন্নয়নে কাজ করতে গড়ে তোলেন চ্যারিটি সংগঠন মেসি ফাউন্ডেশন। ২০১০ সালে শুভেচ্ছাদূত হিসেবে কাজ শুরু করেন ইউনিসেফের সঙ্গে।

নিউজবিডি৭১/এম/২৫ জুন ,২০১৮

Share.

Comments are closed.