২১শে এপ্রিল, ২০১৮ ইং বানেশ্বরে বিপন্ন‘চিতা বিড়াল’কে পিটিয়ে হত্যা
Mountain View

বানেশ্বরে বিপন্ন‘চিতা বিড়াল’কে পিটিয়ে হত্যা

0
image_pdfimage_print

নিউজবিডি৭১ডটকম
মোঃ মেহেদী হাসান, পুঠিয়া(রাজশাহী) : দূর থেকে দেখলে মনে হবে চিতা বাঘ। ভয়ে কেঁপে উঠবে বুক। কিন্তু না, কাছে গেলে সব ভয় দূর হয়ে যাবে। আসলে ওটা চিতা বাঘ নয়, চিতা বিড়াল। দেখতে অনেকটা চিতা বাঘের মতোই। রাজশাহীর পুঠিয়া স্থানীয় জনতা পিটিয়ে হত্যা করে ‘বিপদাপন্ন’ প্রাণী চিতা বিড়ালকে। বৃহস্পতিবার দুপুর ১টার দিকে

উপজেলার বানেশ্বর ইউনিয়নের বালিয়াঘাটি এ ঘটনা ঘটে। এই চিতা বিড়ালটিকে এক পলক দেখার জন্য ঊসক জনতা ভিড় জমাচ্ছে। বানেশ্বর ইউনিয়নের সদস্য আজিজ এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

বালিয়াঘাটি গ্রামের মৃতঃ ইউনোসের ছেলে রহিম জানায়, প্রতিদিনের মত বৃহস্পতিবার দুপুরে তার পানের বরে কাজ করতে যায়। এসময় দেখতে পায় যে পানের বরের এক সাইডের বেড়া ভাঙ্গা। ভিতরে গিয়ে দেখেন এ প্রাণিটি তার দিকে দাওয়া করে। এসময় সে বাঘ, বাঘ চিৎকার করলে, অন্য জমিতে কাজ করা কৃষকের লাটি-শোটা নিয়ে ঐ বিড়ালটিকে ধাওয়া করে। বিড়ালটি প্রাণ ভায়ে পার্শ্বে নরদ নদীতে ঝাঁপ দিয়ে নদীর কিনারে জুলুর বাড়িতে ওঠে। এসময় বাড়িটি ঘিরে বিড়ালটিকে পিটিয়ে হত্যা করে।

এ ব্যাপারে পুঠিয়া থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সাইদুর রহমানের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, এ ধারণের খবর এখনো তো পায়নি।

‘চিতা বিড়ালের’ গায়ে হলুদের ওপর কালো রঙের ছাপ। দেহের তলে সাদা রঙের ওপর হালকা বাদামি ফোঁটা রয়েছে। আকারে ছোট পোষা বিড়ালের মতো একটি স্তন্যপায়ী প্রাণী।

আন্তর্জাতিক প্রকৃতি ও প্রাকৃতিক সম্পদ সংরক্ষণ সংঘ (আইইউসিএন) এর ‘রেডলিস্ট’ তালিকায় চিতা বিড়ালকে ‘বিপদাপন্ন’ প্রাণী হিসেবে তালিকাভুক্ত করা হয়েছে। আর বাংলাদেশে ২০১২ সালের বন্যপ্রাণী (সংরক্ষণ ও নিরাপত্তা) আইনে এদেরকে সংরক্ষিত বলে ঘোষণা দেওয়া হয়েছে।

দিনে দিনে বন ও প্রকৃতি ধ্বংস হয়ে যাওয়ার ফলে বাংলাদেশে এই প্রাণীটি আজ বিপন্ন হয়ে পড়েছে।

নিউজবিডি৭১/আর/২২ মার্চ, ২০১৮

Share.

Comments are closed.