২২শে সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ইং কবর দেওয়ার ১১ দিন পর ভেসে এল চীৎকার! তারপর…(ভিডিও)
Mountain View

কবর দেওয়ার ১১ দিন পর ভেসে এল চীৎকার! তারপর…(ভিডিও)

0
image_pdfimage_print

ডেস্ক রিপোর্ট
নিউজবিডি৭১ডটকম
ঢাকা : পরিবারের কারো ক্যান্সার হয়েছে জানতে পারলে মুহূর্তে ঝড়ো হাওয়া বয়ে যায়।আক্রান্তের পাশাপাশি পরিবারের বাকিরাও বিধ্বস্ত হতে থাকেন আর্থিক চাপে। তছনছ হয়ে যায় পুরো সংসার।

মৃত্যুভয়ের সমান্তরালে অভাবের কারণে ঝাপসা হয়ে যেতে থাকে এতদিনের স্বাচ্ছন্দ্যও। কিন্তু সত্যিই কি খরচ এতটাই নিয়ন্ত্রণের বাইরে? হাসপাতালগুলো কি আরেকটু চিন্তাভাবনা করতে পারে না? ইংল্যান্ডের স্টিভ ব্রিউয়ারের ঘটনা যেন সেই প্রশ্নকেই নতুন করে সামনে নিয়ে এসেছে।

জানা গেছে, চার বছর ধরে স্তনের ক্যান্সারের চিকিৎসা চলছে প্রবীণ স্টিভের। কিন্তু হঠাৎ একদিন হাসপাতালে যেতে নার্স তাকে জানিয়ে দেন, তার চিকিৎসা আর সম্ভব নয় ওই হাসপাতালে।

কারণ ‘ট্রিপল পাম্প’ নামের যে যন্ত্রে তার কেমোথেরাপি দেওয়ার কথা, সেটা হাসপাতালে নেই। সেই যন্ত্র নাম খুব দামি। দাম চার হাজার তিনশ পাউন্ড। বাংলাদেশি টাকায় যা কয়েক লাখ।

স্টিভ এর পর নিজেই নেমে পড়েন ওই যন্ত্রের খোঁজে। অবাক বিস্ময়ে দেখেন, এক অনলাইনে কেনাবেচার এক সাইটে সেই যন্ত্র বিক্রি হচ্ছে মাত্র একশ ৭৫ পাউন্ডে। বাংলাদেশি টাকায় মাত্র ১৬ হাজার।

নতুন নয় অবশ্য। আরেকজন সেটা ব্যবহার করেছে। কিন্তু তার পরেও সেটা নতুনের মতোই।

দেরি করেননি স্টিভ। কিনে নিয়েছেন যন্ত্রটি। সেই যন্ত্রে ঘরে বসেই চলছে তার কেমোথেরাপি। সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে ঝড় তুলেছে তার এই ঘটনা।

নিউজবিডি৭১/আর/১৯ ফেব্রুয়ারি ২০১৮

Share.

Comments are closed.