২১শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ইং আসল এবং নকল ফোনের পার্থক্য ধরে ফেলার ৫টি কৌশল!
Mountain View

আসল এবং নকল ফোনের পার্থক্য ধরে ফেলার ৫টি কৌশল!

0

ডেস্ক রিপোর্ট
নিউজবিডি৭১ডটকম
ঢাকা : বিশ্বের বিখ্যাত ব্রান্ডগুলো নকল হয়ে থাকে সবচেয়ে বেশি।কিছু কিছু সময় এগুলো এমন ভাবে তৈরি করা হয় যে, যেখানে আসল নকলের পার্থক্য করা কঠিন হয়ে পড়ে। আর এই ফলে ঠকতে হয় ক্রেতা সাধারণকে।

নকল পণ্যের ক্ষেত্রে তারা প্যাকেজিং এর থেকে জিনিসের উপর বেশি গুরুত্ব দেয়।এজন্যে যদি প্যাকেটটিকে ভালোভাবে খেয়াল করা যাই তবে দেখা যাবে লেখা গুলো সব জায়গাতে একই রকম স্পষ্ট না। এছাড়া আরো কিছু টিক্স রয়েছে যা আসল নকল পার্থক্য করতে সাহায্য করবে।

ব্যান্ডের জিনিসগুলো তৈরির সময় উচ্চ মানের প্লাস্টিক,রাবার বা অ্যালুমিনিয়াম ব্যবহার করা হয় যেগুলো নমনীয় এবং মসৃন থাকে।অন্যদিকে

নকল পণ্যে নিম্নমানের প্লাস্টিক ব্যবহার করা হয় যেটার উপরে শক্ত প্রলেপ থাকে এবং অমসৃন হয়

বিখ্যাত ব্রান্ডগুলোর লোগোর দিকে তাকালে লক্ষ্য করা যায় আসল নকলের পার্থক্য।আসল এবং নকল পণ্যের লোগো কখনও এক রকম হয় না কিছু পার্থক্য থেকে যায়। ব্রান্ডের চার্জার গুলো

র মধ্যে দুইটি ভিন্ন রঙের প্লাস্টিক পার্ট দেখা যায় না কারন এগুলো সাবধানতার কথা চিন্তা করে তৈরি করা হয়।কিন্তু নকল গুলোতে ভিন্ন রঙের নিম্নমানের প্লাস্টিক ব্যবহার করা হয়।

তারের কোয়ালিটি দেখে খুব সহজে আসল এবং নকলের পার্থক্য নির্ণয় করা যাই।আসল প্লাগড ইন তার সঠিক সাইজের হয় এবং খুব সহজে ডিভাইজের সাথে মানিয়ে যায়।কিন্তু নকল গুলোতে ডিভাইজের সাথে সঠিক সংযোগ হয় না।অন্যদিকে প্লাগড ইন এর সিম্বোলেও পরিবর্তন লক্ষ্য করা যায়।

নিউজবিডি৭১/আর/১৪ ফেব্রুয়ারি ২০১৮

image_print
Share.

Comments are closed.