২৫শে জুন, ২০১৮ ইং উইকিলিকসের প্রতিষ্ঠাতাকে নাগরিকত্ব দিয়েছে ইকুয়েডর
Mountain View

উইকিলিকসের প্রতিষ্ঠাতাকে নাগরিকত্ব দিয়েছে ইকুয়েডর

0
image_pdfimage_print

ডেস্ক রিপোর্ট
নিউজবিডি৭১ডটকম
ঢাকা : উইকিলিকসের প্রতিষ্ঠাতা জুলিয়ান অ্যাসাঞ্জকে নাগরিকত্ব দিয়েছে ইকুয়েডর। বৃহস্পতিবার ইকুয়েডরের পররাষ্ট্রমন্ত্রী মারিয়া ফার্নান্দা ইসপিনাসা সাংবাদিকদের জানান, নাগরিকত্বের ব্যাপারে অ্যাসাঞ্জের আবেদন মঞ্জুর করা হয়েছে।

এদিকে গত পাঁচ বছর ধরে লন্ডনের দূতাবাসে আটকা পড়ে আছেন জুলিয়ান অ্যাসাঞ্জ। ক্ষমতাধর বিভিন্ন ব্যক্তি, সংগঠনের ব্যাপারে গোপন নথি প্রকাশ করার মধ্য দিয়ে আলোচনায় আসে উইকিলিকস। ইউকিলিকসের প্রতিষ্ঠাতা হিসেবে অ্যাসাঞ্জও আলোচনায় আসেন।

অন্যদিকে, ধর্ষণের অভিযোগে তাকে বারবার তলব করেন সুইডেনের আদালত। গত বছর সেই মামলা খারিজ হয়ে গেছে। তবে জামিনের চুক্তি ভঙ্গ করার অভিযোগে আটক এড়াতে দূতাবাসে থেকে গেছেন অ্যাসাঞ্জ।

অবশ্য নাগরিকত্ব প্রদানের ঘোষণা বৃহস্পতিবার দেয়া হলেও গত বুধবারই ইকুয়েডরের লোকদের মতো পোশাক পরে টুইটারে ছবি পোস্ট করেন অ্যাসাঞ্জ।

২০০৮ সালে ইকোনোমিক ম্যাগাজিনের পক্ষ থেকে ‘নিউ মিডিয়া অ্যাওয়ার্ড পান জুলিয়ান। কেনিয়ার জাতীয় মানবাধিকার কমিশন কর্তৃক কেনিয়া পুলিশের হত্যাযজ্ঞের ব্যাপারে ‘কেনিয়া : রক্তের কান্না = অতিরিক্ত বিচারবহির্ভুত হত্যা ও নৈরাজ্য’ নামক নিবন্ধ রচনা করেন তিনি।

পরে জুন ২০০৯ সালে উইকিলিকস এবং জুলিয়ান অ্যাসাঞ্জকে অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল যুক্তরাজ্যের মিডিয়া অ্যাওয়ার্ড দেয়। ২০১০ সালে নিউইয়র্ক ডেইলি নিউজ বলছে, সংবাদকে পুরোপুরি পরিবর্তন করতে উইকিলিকসের মতো ওয়েবসাইটই যথেষ্ট।

২০১০ সালের এপ্রিলে উইকিলিকসের পক্ষ থেকে ২০০৭ সালের একটি ভিডিও প্রকাশ করে। সেখানে দেখা যায় মার্কিন সেনারা ইরাকের সাধারণ নাগরিকদের হত্যা করছে। সেই ঘটনাকে সুপরিকল্পিত হত্যাযজ্ঞ হিসেবে বর্ণনা করা হয়। তার পর থেকে সেনাবাহিনীর শত্রুতে পরিণত হন অ্যাসাঞ্জ। সূত্র : আলজাজিরা

নিউজবিডি৭১/আর/ ১২ জানুয়ারি ২০১৮

Share.

Comments are closed.