১৮ই জানুয়ারি, ২০১৮ ইং ডিভোর্সের শুনানিতে শাকিব-অপুকে ডিএনসিসির নোটিশ
Mountain View

ডিভোর্সের শুনানিতে শাকিব-অপুকে ডিএনসিসির নোটিশ

0

ডেস্ক রিপোর্ট
নিউজবিডি৭১ডটকম
ঢাকা : আগামী ১৫ জানুয়ারি ঢালিউড সুপারস্টার শাকিব খান ও চিত্রনায়িকা অপু বিশ্বাসের তালাকের বিষয়ে শুনানি হবে।
ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের (ডিএনসিসি) অঞ্চল-৩-এর অফিসে এ শুনানি অনুষ্ঠিত হবে। এজন্য ইতোমধ্যে শাকিব ও অপুকে নোটিশ জারি করেছে ডিএনসিসি।

উত্তর সিটির কর্মকর্তারা জানান, গত বছরের ২২ নভেম্বর শাকিব খান মুসলিম পারিবারিক আইন-১৯৬১-এর ৭ (১) ধারা অনুসারে তালাকের নোটিশটি ডাক যোগে ডিএনসিসির কাছে পাঠান। তাদের সালিশি মামলা নম্বর ৮৬৯/২০১৭। এরপরই তারা নিয়ম অনুযায়ী পরবর্তী কার্যক্রম শুরু করেছেন। সে অনুযায়ী আগামী ১৫ জানুয়ারি তাদের শুনানির জন্য ডাকা হয়েছে। এজন্য গত ২৪ ডিসেম্বর শাকিব ও অপুর কাছে শুনানিতে হাজির হওয়ার জন্য নোটিশ পাঠানো হয়েছে। ডাক যোগে শাকিব খানের গুলশান-২-এর ১০০ নম্বর সড়কের ২৯ নম্বর বাড়ির সি-২ ফ্লাটের ঠিকানায় এবং অপু বিশ্বাসের গুলশান-১-এর নিকেতনের এ ব্লকের ২ নম্বর সড়কের ৬৯ নম্বর বাসার বি-৩ ফ্লাটের ঠিকানায় এ নোটিশ পাঠানো হয়েছে।

ডিএনসিসির অঞ্চল-৩-এর আঞ্চলিক নির্বাহী কর্মকর্তা ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো: হেমায়েত হোসেন বলেন, শুনানির দিনে যথারীতি তাদের বক্তব্য নেয়া হবে। তারা যদি আবার স্বামী-স্ত্রী হিসেবে থাকতে রাজি হন তাহলে ধর্মীয় রীতি মেনে তারা আবার একত্রে সংসার করতে পারবেন। আর যদি তারা একত্রে সংসার করতে না চান তাহলে তাদেরকে আরো দুইবার নোটিশ দিয়ে শুনানি করা হবে। এর মধ্যে তারা নিজেরা মিলমিশ করতে চাইলে ধর্মীয় রীতি মেনে তা করতে পারবেন, আর তা না করলে তিন বার শুনানির পর নিয়মানুযায়ী তালাক কার্যকর হয়ে যাবে।

জানা যায়, ২০০৮ সালের ১৬ মার্চ ইসলাম ধর্ম অনুসারে বিয়ে করেন শাকিব খান রানা ও অপু বিশ্বাস। বিয়ের আগে অপু বিশ্বাসের নাম রাখা হয় অপু ইসলাম খান। পরে তাদের একটি পুত্র সন্তান জন্মলাভ করে। ছেলের নাম রাখেন আব্রাহাম খান জয়। তবে দীর্ঘদিন তাদের বিয়ের বিষয়টি গোপন রাখা হয়। অবশেষে গত বছরের ১০ এপ্রিল একটি বেসরকারি টেলিভিশনে সন্তানসহ উপস্থিত হয়ে বিয়ের বিষয়টি প্রকাশ করেন অপু বিশ্বাস।

তিনি জানান, অভিনেতা শাকিব খানের সাথে ৯ বছর আগে তার বিয়ে হয়েছে। তাদের একটি সন্তানও রয়েছে। শাকিবের ক্যারিয়ারের কথা ভেবেই এতদিন বিয়ে বা সন্তানের কথা প্রকাশ্যে আনা হয়নি বলে জানিয়েছেন অপু। তারা স্বামী-স্ত্রী হলেও আলাদা বাসায় থাকেন বলেও উল্লেখ করেন অপু বিশ্বাস। এমনকি তাদের সম্পর্কের মধ্যে আরেক অভিনেত্রী বুবলির প্রবেশের বিষয়টিও জানান তিনি। পরে বুবলিকে নিয়ে শাকিব-অপুর দ্বন্দ্ব চরম আকার ধারণ করে। এর প্রেক্ষিতে গত বছরের ২২ নভেম্বর অপু বিশ্বাসকে তালাকের নোটিশ পাঠান শাকিব খান। তবে বিভিন্ন সময়ে অপু বিশ্বাস গণমাধ্যমে বলেছেন, তিনি শাকিব খানের সাথে সংসার করতে চান। সন্তানের ভবিষ্যতের কথা ভেবে প্রয়োজনে কিছু ছাড় দিয়ে হলেও সম্পর্কটি অব্যাহত রাখার পক্ষে এ অভিনেত্রী।

নিউজবিডি৭১/আর/ ৩ জানুয়ারি ২০১৮

image_print
Share.

Comments are closed.