১১ই ডিসেম্বর, ২০১৭ ইং প্রতিবেদনের বিরুদ্ধে নারাজি আবেদন দাখিল করবেন ফরহাদ মজহারের স্ত্রী

প্রতিবেদনের বিরুদ্ধে নারাজি আবেদন দাখিল করবেন ফরহাদ মজহারের স্ত্রী

0

ডেস্ক রিপোর্ট
নিউজবিডি৭১ডটকম
ঢাকা : ফরহাদ মজহারকে অপহরণের অভিযোগের ‘সত্যতা পাওয়া যায়নি’ জানিয়ে আদালতে পুলিশের দেয়া চূড়ান্ত প্রতিবেদনের বিরুদ্ধে নারাজি আবেদন দাখিল করবেন স্ত্রী ফরিদা আক্তার।

বৃহস্পতিবার (৭ ডিসেম্বর) ঢাকার ৭ নম্বর মহানগর হাকিম খুরশীদ আলমের আদালতে হাজির হয়ে ফরিদা আক্তার তার আপত্তির কথা জানান বলে জানিয়েছেন তার আইনজীবী সৈয়দ জয়নুল আবেদীন মেজবাহ।

ওই মামলার তদন্ত কর্মকর্তা গোয়েন্দা পুলিশের পরিদর্শক মাহবুবুল হক গত ১৪ নভেম্বর আদালতে চূড়ান্ত প্রতিবেদন দেয়ার পাশাপাশি মিথ্যা মামলা দায়েরের অভিযোগে মজহার দম্পতির বিরুদ্ধে পাল্টা মামলা করার অনুমতি চান।

আদালত বিষয়টি ৭ ডিসেম্বর শুনানির জন্য রেখেছিল। সে অনুযায়ী ফরিদা বৃহস্পতিবার আদালতে হাজির হয়ে নারাজি দেয়ার কথা জানিয়ে সময়ের আবেদন করেন। তার আবেদন ‍শুনে বিচারক ৯ জানুয়ারি নারাজি আবেদন দাখিলের দিন ঠিক করে দেন।

জয়নুল আবেদীন মেজবাহ বলেন, বাদী বলেছেন চূড়ান্ত প্রতিবেদনে তদন্ত কর্মকর্তা বাদীর বিরুদ্ধে শাস্তির আবেদন করেছেন, এর কোনো যুক্তি নেই। তিনি সঠিক মামলাই করেছিলেন। নারাজি আবেদনে মামলার সত্যতা তুলে ধরে দেখানো হবে- ওই চূড়ান্ত প্রতিবেদন কতটা অসার। প্রয়োজনে আমরা উচ্চ আদালতে যাব।

মামলার তদন্ত প্রতিবেদন জমার দিন ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের অতিরিক্ত উপ কমিশনার (পশ্চিম) গোলাম মোস্তফা রাসেল বলেছিলেন, অভিযোগটি ছিল মিথ্যা। এ কারণে ফৌজদারি দণ্ডবিধির ২১১ ও ১০৯ ধারায় ব্যবস্থা নিতে আদালতে আবেদন করা হয়েছে, যাতে তাদের এবং সহযোগীদের বিচারের আওতায় আনা হয়।

গত ৩ জুলাই সকালে রাজধানীর শ্যামলীর বাসা থেকে বেরিয়ে কবি প্রাবন্ধিক ফরহাদ মজহারের নিখোঁজ হওয়ার খবর আসে। ওইদিনই ফরিদা আখতার তার স্বামীকে অপহরণের অভিযোগ এনে একটি সাধারণ ডায়েরি করেন, যা পরে মামলা হিসেবে নথিভুক্ত হয়।

এই অন্তর্ধান নিয়ে রাজনৈতিক অঙ্গন থেকে শুরু করে সব মহলে আলোচনার মধ্যে ১৮ ঘণ্টা পর গভীর রাতে নাটকীয়ভাবে যশোরে বাস থেকে ফরহাদ মজহারকে উদ্ধার করে র‌্যাব-পুলিশ।

আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর কর্মকর্তারা সেদিনই বলেছিলেন, অপহরণের কোনো নজির তারা পাননি; ফরহাদ মজহার নিজেই অপহরণের নাটক সাজিয়েছিলেন বলে তারা মনে করছেন।

নিউজবিডি৭১/আর/৭ ডিসেম্বর , ২০১৭

image_print
Share.

Comments are closed.