২১শে নভেম্বর, ২০১৭ ইং প্রবাসীদের কুয়েত থেকে বের করে দেওয়ার হুমকি!

প্রবাসীদের কুয়েত থেকে বের করে দেওয়ার হুমকি!

0

ডেস্ক রিপোর্ট
নিউজবিডি৭১ডটকম
ঢাকা : কুয়েতে ট্রাফিক আইন ভঙ্গকারীদের বিরুদ্ধে কঠোর হয়েছে দেশটির সরকার। নিরাপদ গাড়ি চালানোর সংস্কৃতিচালু করার উদ্দেশ্যে ট্রাফিক আইন লঙ্ঘনকারীদের জন্য কঠোর শাস্তির ঘোষণা দেয়া হয়েছে। এর মধ্যে অন্যতমহলো, গাড়ি চালানো অবস্থায় কেউ যদি মোবাইলে ফোনে কথা বলে অথবা সিটবেল্ট না বাঁধে তাহলে দুই মাসেরজন্য তার গাড়ি বাজেয়াপ্ত করা হবে।

কুয়েতের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী শেখ খালিদ আল জারাহ এসব সিদ্ধান্তের ঘোষণা দিতে গিয়ে বলেন, যেসব গাড়ি রাস্তার পাশে হাঁটার জায়গায় অথবা পার্কিং নিষিদ্ধ এলাকায় পার্ক করা থাকবে বা রাস্তায় যানজটের কারণ হবে সেসব গাড়ি তুলে নিয়ে যাওয়া হবে এবং দুই মাস কর্তৃপক্ষের অধীনে থাকবে।

কুয়েতি দৈনিক আল জারিদা এই খবর প্রকাশ করেছে।কোন চালক নিয়মের চেয়ে দ্রুতগতিতে গাড়ি চালাচ্ছে এমনটা যদি ক্যামেরায় ধরা পড়ে তাহলে ঐ চালকদের কুয়েত সিটির সালমিয়া এলাকার ট্রাফিক বিভাগের কাছে হাজিরা দিতে হবে।

এক্ষেত্রেও অপরাধ প্রমাণিত হলে, গাড়িচালক দুই মাসের জন্য তার গাড়ি হারাবে। সব মিলিয়ে বলা যায়, কুয়েত সরকার ট্রাফিক আইন লঙ্ঘনকারীদের ক্ষেত্রে জিরো টলারেন্স নীতি গ্রহণ করেছে।

আর প্রবাসীদের মধ্যে কেউ ট্রাফিক আইন লঙ্ঘন করবে তাদেরকে প্রচলিত শাস্তির পাশাপাশি নিজ নিজ দেশে ফেরত পাঠানোও হতে পারে বলে জানানো হয়েছে।যেসব বিদেশী নাগরিক ট্রাফিক সিগন্যাল অমান্য করছে, বেপরোয়া গাড়ি চালাচ্ছে, ব্যক্তিগত গাড়ি অবৈধভাবে যাত্রী পরিবহণের কাজে ব্যবহার করছে এবং উপযুক্ত ড্রাইভিং লাইসেন্স ছাড়া গাড়ি চালাচ্ছে তাদের বিরুদ্ধে অভিযান অব্যাহত রেখেছে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ।

নিউজবিডি৭১/এম/১২ নভেম্বর ২০১৭

image_print
Share.

Comments are closed.