২১শে নভেম্বর, ২০১৭ ইং রূপগঞ্জে শিক্ষার্থী নির্যাতনের ঘটনায় মাদ্রাসা শিক্ষককে গণধোলাই !

রূপগঞ্জে শিক্ষার্থী নির্যাতনের ঘটনায় মাদ্রাসা শিক্ষককে গণধোলাই !

0

নিউজবিডি৭১ডটকম
মো:শরীফ হোসেন লিটন, রূপগঞ্জ (নারায়ণগঞ্জ) করেসপন্ডেন্ট : নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জে মাদ্রাসা শিক্ষার্থী নির্যাতনের ঘটনায় বৃহস্পতিবার সকালে ঐ মাদ্রাসার শিক্ষককে বিক্ষুব্ধরা গণধোলাই দিয়েছে। কাঞ্চনের কলাতলী এবতেদায়ী ও হাফিজিয়া মাদ্রাসার এ লম্পট শিক্ষকের বিরুদ্ধে ঐ মাদ্রাসায় পড়–য়া প্রায় এক ডজন শিক্ষার্থীকে নির্যাতন করার অভিযোগ উঠেছে। গত এক যুগে তার নির্যাতনের শিকার হয়ে অনেক শিক্ষার্থী রাতের আঁধারে পালিয়ে গেছে। বর্তমানে মাদ্রাসাটি শিক্ষার্থী শূণ্য হয়ে পড়েছে। বুধবার রাতে এক শিক্ষার্থীকে নির্যাতনের সময় তার আত্মচিৎকারে আশপাশের লোকজন এসে ঐ শিক্ষককে হাতে-নাতে আটক করে। পরে বৃহস্পতিবার সকালে ঐ শিক্ষককে স্থানীয়রা গণপিটুনি দেয়। তবে মাদ্রাসা কমিটির তদবিরে লম্পট শিক্ষক এখনো বহাল তবিয়তে রয়েছে। তার অপসারণের দাবীতে স্থানীয়রা ক্রমেই ক্ষোভে ফুঁসে উঠছে।

অভিযোগে জানা গেছে, নরসিংদীর শিবপুর উপজেলার গ্রামের মাওলানা হাফেজ মোঃ ইকবাল হোসেন গত এক যুগ আগে কাঞ্চনের কলাতলী এবতেদায়ী ও হাফিজিয়া মাদ্রাসায় অধ্যক্ষ হিসেবে যোগদান করেন। যোগদানের কয়েক মাস পর থেকেই লম্পট এ শিক্ষক প্রায় রাতে ছাত্রদের তার কক্ষে ডেকে নিয়ে যেতো। পরে অভিনব কৌশলে ঘুমের ঔষধ খাইয়ে নির্যাতন করতো। তার নির্যাতনের শিকার হয়ে গত এক যুগে প্রায় অর্ধশত শিক্ষার্থী মাদ্রাসা ছেড়ে চলে গেছে।

গত কয়েক মাসে মাদ্রাসা শিক্ষার্থী হাফেজ আবু হানিফা, হাফেজ মামুন মিয়া, রাকিব হোসেন, হাফেজ তারিকুল ইসলাম, হাফেজ রবিউল ইসলাম, আশ্রাব আলীসহ এক ডজন শিক্ষার্থীকে লম্পট শিক্ষক নির্যাতন করেছে বলে অভিযোগ উঠেছে। অবশেষে বুধবার রাতে কলাতলী এলাকার হারুণ মোল্লার ছেলে হিমেল মোল্লাকে ঐ শিক্ষক নির্যাতন করেছে। তার আত্মচিৎকারে আশপাশের লোকজন এগিয়ে এসে হিমেলকে উদ্ধার করে। পরে বৃহস্পতিবার সকালে স্থানীয়দের উপস্থিতিতে লম্পট শিক্ষককে গণপিটুনি দেওয়া হয়। তবে মাদ্রাসা কমিটির তদবিরে লম্পট শিক্ষক এখনো বহাল তবিয়তে রয়েছে। শিক্ষকের অপসারণের দাবীতে ক্রমেই স্থানীয় এলাকাবাসী ক্ষোভে ফুঁসে উঠছে। এ ব্যাপারে জানতে অভিযুক্ত মাদ্রাসা শিক্ষক মাওলানা হাফেজ ইকবাল হোসেনের সেলফোনে বহুবার চেষ্টা করেও পাওয়া যায়নি।

নিউজবিডি৭১/এম/১০ নভেম্বর ২০১৭

image_print
Share.

Comments are closed.