২৪শে জুলাই, ২০১৭ ইং সন্তানকে নিয়ে নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন অপু!

সন্তানকে নিয়ে নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন অপু!

0

ডেস্ক রিপোর্ট
নিউজবিডি৭১ডটকম
ঢাকা : এফডিসিতে শাকিবের উপর হামলার ঘটনায় পুত্র আব্রাম খানকে নিয়ে নিরাপত্তাহীনতায় দিন কাটছে ঢাকাই সিনেমার জনপ্রিয় অভিনেত্রী অপু বিশ্বাসের।

অপু জানান, শাকিব খানের উপর হামলার পর থেকে আব্রামকে নিয়ে আমি নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছি। ছেলেটা মাত্র পৃথিবীতে এসেছে। তাতে নিয়েই আতংকে দিন কাটছে আমার। শাকিব খানের উপর হামলার ঘটনাটা সত্যিই আমাকে ব্যথিত করেছে। বার বার কেন জানি না মনে হচ্ছে আমার জন্যই কিনা এসব হচ্ছে। খুবই গিলটি ফিল করছি।’

সঙ্গে আরো যোগ করলেন, শাকিব খান সভাপতি ছিলেন। সেক্ষেত্রে নির্বাচনের খোঁজখবর নিতে অবশ্যই এফডিসিতে যেতে পারেন। সেক্ষেত্রে তার সঙ্গে যে আচরণ করা হলো সেটা অমানবিক।’

এদিকে টানা চারদিন হাসপাতালে থেকে শুক্রবার বাসায় ফিরেছেন ঢাকাই ছবির নায়ক শাকিব খান। চিকিৎসকের পরামর্শেই তিনি হাসপাতালে এতদিন বিশ্রাম নিয়েছেন বলে জানান শাকিব খান।

শাকিব খান বলেন, আগে থেকে অনেককে শিডিউল দেওয়া ছিল। প্রচুর ব্যস্ততা, যে কারণে চাইলেও বিশ্রাম নিতে পারছিলাম না। এমনিতেই আমার ওপর অনেক ধকল গেছে। এবার চিকিৎসকের কথা শুনেছি। হাসপাতালে ভর্তি আছি, শরীর কিছুটা ভালো মনে হচ্ছে। দু-একদিনের মধ্যে বাসায় ফিরব। সবাই আমার জন্য দোয়া করবেন।’

গত সপ্তাহের সোমবার নিয়মিত স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য রাজধানীর ল্যাবএইড হাসপাতালে ভর্তি হন শাকিব খান। এর আগে শুটিং ও বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির নির্বাচন নিয়ে ব্যস্ত ছিলেন সমিতির বিদায়ী এই সভাপতি। কেন তাঁকে চারদিন হাসপাতালে থাকতে হয়েছে, সে প্রসঙ্গে চিকিৎসক বলেন, শাকিব খানের জন্য এখন বিশ্রাম জরুরি বলেই তাঁকে ছাড়া হয়নি। শাকিব হাসপাতালে ড. ওয়াদুদ চৌধুরীর তত্ত্বাবধানে ছিলেন।

এর আগে গত শুক্রবার বিএফডিসিতে শিল্পী সমিতির নির্বাচনের রাতে হামলায় আহত হন শাকিব থান। ওই ঘটনায় নিরাপত্তাহীনতার অভিযোগ তোলেন তিনি। এ নিয়ে নিরাপত্তা চেয়ে তেজগাঁও শিল্পাঞ্চল থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেন তিনি।

এদিকে এই অভিযোগের বিষয়ে আদালত তদন্তের নির্দেশ দিয়েছেন। এই মামলার তদন্ত কর্মকর্তা তেজগাঁও শিল্পাঞ্চল থানার এসআই হাবিবুল্লাহ খানের করা এক আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে বৃহস্পতিবার ঢাকা মহানগর হাকিম সুব্রত শুভ ঘোষ এ আদেশ দিয়ে আগামী ১৩ জুনের মধ্যে প্রতিবেদন দাখিলের নির্দেশ দেন।

জিডিতে চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির নবনির্বাচিত সাধারণ সম্পাদক জায়েদ খানকে হামলার মূল পরিকল্পনাকারী হিসেবে উল্লেখ করেন শাকিব। আরো অভিযোগ করা হয় চিত্রনায়ক সাইমন সাদিক ও খল অভিনেতা জিয়ার বিরুদ্ধে।

সাধারণ ডায়েরিতে শাকিব খান উল্লেখ করেন, ‘আমি বিএফডিসিতে বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির বর্তমান সভাপতি হিসেবে দায়িত্বরত আছি। ৫ মে এফডিসিতে চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির নির্বাচন হয়। ৬ মে রাত আনুমানিক ১টা ৩০ মিনিটে বিভিন্ন লোক মারফত আমার কাছে খবর আসে যে, নির্বাচনের ফলাফল এখন পর্যন্ত প্রকাশিত হয়নি। আপিল বিভাগের লোকজন শিল্পী সমিতি অফিসের ভেতরে ভোট গণনা কেন্দ্রে অবস্থান করছে ও বহিরাগত অনেক লোক সমিতির অফিসের বাইরে অবস্থান করছে। সমিতির সভাপতি হিসেবে বিষয়টি দেখা আমার এখতিয়ারভুক্ত, বিধায় আমি এফডিসিতে আসি।

এ সময় আমি দেখি যে, শিল্পী সমিতির অফিসে আপিল বিভাগের লোকজন ও বাইরে বহিরাগত লাল গেঞ্জি পরিহিত পিস্তল হাতে একজন সন্ত্রাসীসহ চাপাতি হাতে কয়েকজন লোক অবস্থান করছে। এসব বহিরাগত লোক এফডিসির ভেতরে এত রাতে কীভাবে এল এবং কেন অস্ত্র হাতে অবস্থান করছে জানতে চাইলে সেখানে উপস্থিত নৃত্যপরিচালক সাঈফ খান কালু, চিত্রনায়ক সাইমন সাদিক, অভিনেতা জিয়া, ফাইটার শামিমসহ আরো কয়েকজন অজ্ঞাত লোক আমার ওপর হামলা করতে আসে। আমাকে ছুরি দিয়ে আঘাত করার চেষ্টা করে। আমার এক ভক্ত আমাকে রক্ষা করতে গেলে আক্রমণকারীর ছুরির আঘাতে তার হাত কেটে যায়। আমি নিজের প্রাণ রক্ষার্থে পুলিশ, আমার ব্যক্তিগত দেহরক্ষী ও কিছু কলাকুশলীর সহযোগিতায় দ্রুত ঘটনাস্থল ত্যাগ করি। তখন সন্ত্রাসীরা আমাকে মিথ্যা অপবাদ দিয়ে ধর ধর বলে ধাওয়া করে।’

শাকিব খান আরো উল্লেখ করেন, ‘বর্তমানে বিভিন্ন মারফত আমাকে হুমকি দেয়া হচ্ছে যে, আমাকে মিথ্যা মামলায় জড়িয়ে হয়রানি করবে ও রাস্তাঘাটে একা পেলে মেরে ফেলবে। এ অবস্থায় আমি নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছি। এসব কর্মকাণ্ডের পরিকল্পনাকারী চিত্রনায়ক জায়েদ খানসহ আরো কয়েকজন জড়িত বলে আমার বিশ্বাস।’

নিউজবিডি৭১/এম/১৩ মে , ২০১৭

image_print
Share.

Comments are closed.