৫ বলে ৩ উইকেট হারালো রাজশাহী

ডেস্ক রিপোর্ট
নিউজবিডি৭১ডটকম
ঢাকা :
বিপিএলে মঙ্গলবার সিলেট পর্বের প্রথম ম্যাচে রাজশাহী কিংসের বিপক্ষে মাঠে নেমেছিল খুলনা টাইটান্স। আসরে প্রথম জয়ের লক্ষ্যে টসে জিতে ব্যাটিং করে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৯ উইকেট হারিয়ে ১২৮ রান তুলতে সক্ষম হয় টাইটান্সরা।

ব্যাট করতে নেমে প্রথম ওভারে কামরুল ইসলাম রাব্বির ওভারে মাত্র ৩ রান নিতে সক্ষম হয় রাজশাহী। এরপরের ওভারে ইসুরু উদানার বিপক্ষে ১০ রান নিয়ে বড় ভালো শুরুর ইঙ্গিত দিয়েছিলেন উইকেট রক্ষক ব্যাটসম্যান জহুরুল ইসলাম। কিন্তু ওভারের পঞ্চম বলে থার্ড ম্যান অঞ্চলে ব্যক্তিগত ১৩ রানে আরাফাত সানির হাতে ধরা পড়েন তিনি।

অমি ফিরে যাওয়ার পর মালানকে সঙ্গে নিয়ে পাওয়ার প্লে’তে রান তোলার কাজে ব্যস্ত ছিলেন জুনায়েদ সিদ্দিকি। ইনিংসের পঞ্চম ওভারে এসে মিরাজকে এগিয়ে এসে মারতে গিয়ে বলের লাইন মিস করে বোল্ড হন জুনায়েদ।

তাঁর ব্যাট থেকে আসে ১৪ রান। খানিক পর মিরাজকে রিভার্স সুইপ খেলতে গিয়ে লেগ বিফরের ফাঁদে পড়েন মালান। ১৫ রানে অভিজ্ঞ এই ইংলিশম্যান ফিরে গেলে দলীয় ৫০’র আগেই ৩ উইকেট হারিয়ে বসে টাইটান্স শিবির।

৪৯ রানে ৩ উইকেট হারিয়ে বসা খুলনা টাইটান্সকে আরও বড় বিপদে ফেলেন অধিনায়ক রিয়াদ। ব্যক্তিগত ৯ রানে আরাফাত সানিকে লেগ সাইডে মারতে গিয়ে ক্রিস্টিয়ান জঙ্কারের হাতে ক্যাচ দিয়ে বসেন তিনি।

এর দুই ওভার পর রান আউটের ফাঁদে পড়ে সাজঘরে ফেরেন শান্ত। সেই ওভারের পঞ্চম বলে আরাফাত সানির বলে লেগ বিফরের ফাঁদে পড়েন ব্রাথওয়েটও। ৮২ রানে ৬ উইকেট হারিয়ে ব্যাকফুটে চলে যায় খুলনা।

সেখান থেকে দলকে উদ্ধারের দায়িত্ব কাঁধে নেন আরিফুল হোক এবং ডেভিড উইজে। দলকে ১০০ রানের উপরে নিয়ে গেলেও উইজে বিদায় নেন ১৩ রানে। শেষ ওভারে আরিফুল হক ২৭ বলে ২৬ রান করে মুস্তাফিজের বলে ফিরলে ৯ উইকেট হারিয়ে ১২৮ রানের পুঁজি পায় খুলনা। রাজশাহীর পক্ষে মিরাজ এবং আরাফাত সানি এবং উদানা নেন ২টি করে উইকেট।

খুলনা টাইটান্স একাদশঃ

মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ (অধিনায়ক), আরিফুল হক, নাজমুল ইসলাম অপু, তাইজুল ইসলাম, শরিফুল ইসলাম, জুনায়েদ সিদ্দিকি, ডেভিড ভিসে, কার্লোস ব্র্যাথওয়েট, জুনায়েদ খান, জহুরুল ইসলাম (উইকেটরক্ষক), ডেভিড মালান।

রাজশাহী কিংস একাদশঃ

মেহেদি হাসান মিরাজ (অধিনায়ক), মমিনুল হক, মুস্তাফিজুর রহমান, জাকির হাসান (উইকেটরক্ষক), সৌম্য সরকার, আরাফাত সানি, কামরুল ইসলাম রাব্বি, ক্রিস্টিয়ান জঙ্কার, ইসুরু উদানা, লরি ইভান্স, রায়ান টেন ডেসকাট।

সংক্ষিপ্ত স্কোরঃ

রাজশাহী কিংসঃ ৩৩/৪ (৭ ওভার)

টেন ডেসকাট ০* জাকির হাসান ১*

খুলনা টাইটান্সঃ ১২৮/৯ (২০ ওভার)

(আরিফুল ২৬) (মিরাজ ২/২১)

নিউজবিডি৭১/এম কে/ জানুয়ারি ১৫, ২০১৯




৪০০ গোলের অনন্য মাইলফলকে মেসি

ডেস্ক রিপোর্ট
নিউজবিডি৭১ডটকম
ঢাকা :
প্রথম খেলোয়াড় হিসেবে লা লিগায় ৪০০তম গোলের মাইলফলক গড়েছেন আর্জেন্টাইন ফুটবল জাদুকর লিওনেল মেসি।

রোববার (১৩ জানুয়ারি) রাতে ক্যাম্প ন্যুয়ে বার্সেলোনা বনাম এইবারের ম্যাচের পর এ রেকর্ড গড়েন মেসি।

সেই ম্যাচে ৩-০ গোলে জয় পায় মেসির বার্সেলোনা।

খেলায় ৫৩ মিনিটের মাথায় সুয়ারেজের পাস থেকে লক্ষ্যভেদ করেন মেসি।

আর এ গোলটি দিয়েই ৪০০ গোলের অনন্য মাইলফলক স্পর্শ করেন এ বার্সা দলপতি।

২০১৪ সালেই তেলমা জারাকে পেছনে ফেলে লা লিগার ইতিহাসের সর্বোচ্চ গোলদাতার খেতাব নিজের দখলে নিয়েছিলেন মেসি।

এবার সেই গোলের ধারায় ছুঁলেন অনন্য এ রেকর্ডটি।

চলতি মৌসুমে গোল ছন্দেই আছেন মেসি। এখন পর্যন্ত ২৩ ম্যাচ খেলে ২৫ গোল করেছেন গোলমেশিন মেসি। এর মধ্যে ১৭ গোলই তার লা লিগায়।

লা লিগার গত ৫ ম্যাচে ৮ বার বিপক্ষের জালে বল জড়িয়েছেন তিনি।

৮ গোলের মধ্যে লেভান্তের বিপক্ষে একটি হ্যাটট্রিক রয়েছে।

মেসির মাইলফলক গড়া ম্যাচে ব্রাজিলিয়ান তারকা ফিলিপ্পে কুতিনহোর বানিয়ে দেয়া বলে লক্ষ্যভেদ করে গোলের খাতা খোলেন লুইস সুয়ারেজ।

৫৩ মিনিটে ব্যবধান দ্বিগুণ করেন মেসি। এর ৬ মিনিট পরই সার্জি রবার্তোর থ্রোইন কাজে লাগিয়ে নিজের দ্বিতীয় ও দলের তৃতীয় গোলটি করেন সুয়ারেজ।

খেলায় ৩-০ তে দুর্বল এইবারকে পরাস্ত করে মেসির বার্সা।

৬ মিনিট বাদের সার্জি রবার্তোর থ্রোইন কাজে লাগিয়ে নিজের দ্বিতীয় ও দলের তৃতীয় গোলটি করেন সুয়ারেজ।

এমন মাইলফলকের পর মেসিকে আবারও ভিনগ্রহের অসাধারণ খেলোয়াড় বলে মন্তব্য করেছেন বার্সা কোচ আর্নেস্তো ভালভার্দে।

৪০০ গোল অবিশ্বাস্য জানিয়ে মেসির প্রশংসায় বার্সা কোচ আর্নেস্তো ভালভার্দে বলেন, আমি অনুভব করতে পারছি মেসি ৫০০ গোলের মাইলফলকও ছুঁয়ে ফেলবে একদিন।

প্রশংসা ঝড়ে পড়ল সুয়ারেজের মুখ থেকেও। ম্যাচ শেষে সুয়ারেজ বলেন, অবশ্যই মেসি সেরা। বার্সার সঙ্গে মেসি ইতিহাস গড়েই চলেছে।

মেসির পর লা লিগার শীর্ষ গোলদাতার তালিকায় সেরা পাঁচে জুভেন্টাস তারকা ক্রিস্টিয়ান রোনালদো (৩১১), হুগো সানচেজ (২৩৪ গোল) ও মাদ্রিদ কিংবদন্তি রাউল (২২৮)।

নিউজবিডি৭১/এম কে/ জানুয়ারি ১৪, ২০১৯




দেখেনিন বিভিন্ন ফুটবল লিগের সকল ম্যাচের ফলাফল

ডেস্ক রিপোর্ট
নিউজবিডি৭১ডটকম
ঢাকা :
ফুটবল একটি জনপ্রিয় খেলা। বিশ্বের বিভিন্ন দেশী প্রতিদিনই বিভিন্ন ক্লাবের খেলা অনুষ্ঠিত হয় সেখানে খেলা আপনাদের পছন্দের তারকা ফুটবলাররা। তাই সেই সকল খেলার খবর এক সঙ্গে জেনেনিন।

ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগএভারটন ২-০ বোর্ন মাউথটটেনহাম ০-১ ম্যানইউ

কোপা ইতালিয়াতুরিনো ০-২ ফিওরেন্তিনাইন্টার মিলান ৬-২ বেনেবেনতোনাপোলি ২-০ সাসোলো

স্পানিশ লা লিগাঅ্যাতলেটিকো মাদ্রিদ ১-০ লেভান্তেবিলবাও ২-০ সেভিয়াবার্সালোনা ৩-০ এইবারবেতিস ১-২ রিয়াল

লিগ ওয়াননান্টেস ০-১ রেনেসডিজন ১-১ মন্টিপিলিয়েরতুলুসে ১-২ স্ট্রাসবার্গমার্শেই ১-১ মোনাকো

এশিয়ান কাপনর্থ কোরিয়া ০-৬ কাতারওমান ০-১ জাপানতুর্কেমিনিস্তান ০-৪ উজবেকিস্তান

নিউজবিডি৭১/এম কে/ জানুয়ারি ১৪, ২০১৯




আজ দুপুরে প্রথম ওয়ানডেতে মুখোমুখি হতে যাচ্ছে বাংলাদেশ-উইন্ডিজ

ডেস্ক রিপোর্ট
নিউজবিডি৭১ডটকম
ঢাকা : তিন ম্যাচ ওয়ানডে সিরিজের প্রথমটিতে আজ রোববার বাংলাদেশের মুখোমুখি হতে যাচ্ছে উইন্ডিজ। এই সিরিজ জিতে ক্যারিবিয়ারা বিশ্বকাপের প্রস্তুতি সারতে চায়। নিজেদের আত্মবিশ্বাস বাড়িয়ে নিতে চায়। অন্যদিকে বাংলাদেশ চায় আরো একটি সিরিজ জিতে ২০১৮ সাল শেষ করতে।

তবে ফরম্যাটটা যখন ওয়ানডে, তখন ওয়েস্ট ইন্ডিজের সঙ্গে বাংলাদেশের লড়াই হতেই পারে। মাশরাফির মতে এই ফরম্যাটে ওয়েস্ট ইন্ডিজের মাসল পাওয়ার বেশি। ফরম্যাট যত ছোট হবে, ওয়েস্ট ইন্ডিজের জন্য ততো সুবিধা। বাংলাদেশের বিপক্ষে টেস্ট সিরিজে হোয়াইটওয়াশ হলেও ওয়ানডেতে ঘুরে দাঁড়াতে আত্মবিশ্বাসী ওয়েস্ট ইন্ডিজ।

শনিবার যেমনটা জানিয়েছিলেন ভারপ্রাপ্ত অধিনায়ক রভম্যান পাওয়েল, ‘অনেক দিন ধরে আমরা ওয়ানডে সিরিজ জিতিনি। সিরিজ জিততে সবাই মুখিয়ে আছে এবং নিজেদের সেরাটা দিয়ে খেলতে প্রস্তুত। বাংলাদেশের বিপক্ষে সিরিজ জেতার চেয়ে ভালো সুযোগ আমাদের আর আসবে না। সিরিজ জিততে পারাটা আমাদের জন্য হবে দারুণ কিছু।’

সবশেষ ওয়েস্ট ইন্ডিজ বাংলাদেশের বিপক্ষে সিরিজ জিতেছিল ২০১৪ সালে। ঘরের মাঠে সেবার বাংলাদেশের বিপক্ষে ৩-০ ব্যবধানে সিরিজ জিতেছিল তারা। এরপর আর সিরিজ জেতা হয়নি তাদের। অন্যদিকে চলতি বছর ঘরের মাঠে ওয়েস্ট ইন্ডিজ বাংলাদেশের কাছে সিরিজ হেরেছে। এবার তারা বাংলাদেশকে তাদের ঘরের মাঠে হারিয়ে সিরিজ জিততে চায়।

রভম্যান পাওয়েল এ বিষয়ে বলেছেন, ‘এটা খুব চ্যালেঞ্জিং হবে। ঘরের সুবিধায় থাকা যেকোন দলকে মোকাবেলা করা কঠিন। বাংলাদের ঘরের মাঠে খুবই ভাল দল। দলগতভাবে আমরা এ বিষয়ে বেশ সতর্ক আছি। ক্যারিবিয়ানে তারা আমাদের পরাজিত করেছে। আর আমরা এখানে ঠিক সেটাই করতে চাচ্ছি। আমার মনে হয় বাংলাদেশকে হারানোর জন্য আমরা যথেষ্ট ভাল দল। তামিম-সাকিব ফেরায় তারা পূর্ণ শক্তি পেয়েছে। কিন্তু আমরাও পূর্ণ শক্তির কাছাকাছিই আছি। খুবই রোমাঞ্চকর সিরিজ হবে।’

২০১৪ সালের পর ওয়েস্ট ইন্ডিজ ১১টি সিরিজ হেরেছে। আফগানিস্তানের মতো দলের বিপক্ষেও তারা সিরিজ হেরেছে। জুলাইতে তারা বাংলাদেশের বিপক্ষে ২-১ ব্যবধানে সিরিজ হেরেছে। আর সবশেষ অক্টোবরে ভারতের কাছে তারা ৩-১ ব্যবধানে সিরিজ হেরেছে।

অন্যদিকে বাংলাদেশ ঘরের মাঠে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে সিরিজ জিতেছে। এরপর ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে টেস্ট সিরিজ জিতেছে। সবশেষ ক্যারিবিয়ানদের বিপক্ষে প্রস্তুতি ম্যাচও দাপটের সঙ্গে জিতেছে। সব মিলিয়ে ঘরের মাঠে বাংলাদেশ ওয়ানডেতে যেকোনো দলকে হারিয়ে দেওয়ার সামর্থ রাখে।

ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে সিরিজ জিতে বছরের শেষরা রাঙাতে চান মাশরাফি বিন মুর্তজা, ‘আমার কাছে মনে হয় এই বছর আমাদের রেটিং খুব ভালো আছে। ভালোভাবে শেষ করতে পারলে খুব ভালো হবে। বিশেষ করে সামনের বছরের শুরু থেকে অনেক চ্যালেঞ্জ আছে। শেষটা ভালো করলে এই বছরটা খুব ভালো যাবে।’

ঘরের মাঠে খেলা হলেও মাশরাফি নিজেদের ফেবারিট মনে করছেন না। তবে সব বিভাগে ভালো খেললে ভালো ফল আসবে বলে মনে করছেন, ‘ফেবারিটের ক্ষেত্রে আমি বলব সমানভাবে। কারণ ওদের দলে কিছু আছে যেটা দুর্দান্ত। একজন ফাস্ট বোলার আছে। জোরে বোলিং করবে। যেটা হয় যে, জোরে বল করা বোলারদের ক্ষেত্রে অনেক সময় হুটহাট করে উইকেট পড়ে যায়। তাতে শুরুতে চাপ আসে। তাই এই জায়গাগুলো চিন্তা করার ব্যাপার আছে। একইভাবে ওরা কিছু জিনিসে আমাদের থেকে অনেক বেশি সাহায্য পাবে। ওয়েস্ট ইন্ডিজের আসলে মাসল পাওয়ার অনেক বেশি। এই ধরনের ফরম্যাটে একজন দুইজন কিন্তু গেইম চেইঞ্জ করে দিতে পারে। এই জায়গাটায় ওদের কয়েকজন আছে এমন, ডেস্ট্রয় করতে পারে। আমাদের ওদের বিপক্ষে এই পার্টটা খেয়াল রাখতে হবে। ওদের জন্য ফরম্যাট যত ছোট হবে তত বেশি স্যুট করবে। তাই আমাদেরকে লক্ষ্য রাখতে হবে যে ওরা যেন জুটি বড় করতে না পারে। আর এমনি এমনি তো জেতা সম্ভব না। অবশ্যই হোম ওয়ার্ক, একইসঙ্গে মাঠে বাস্তবায়নটা শতভাগ ঠিক থাকতে হবে। অন্তত ৮০ ভাগ ঠিক থাকলে হয়তোবা ভালো ম্যাচ হবে। আমি আশা করছি না যে টেস্টের মতো বা আগে পরে যেসব ম্যাচ জিতে আসছি এত সহজ হবে।’

তারপরও খেলা যখন ঘরের মাঠে, আর সাকিব-তামিম যখন দলে ফিরেছেন, তখন আরো একটি সিরিজ জয়ের প্রত্যাশা করতেই পারে বাংলাদেশের ক্রিকেটপ্রেমিরা। আর সেটার শুরুটা হোক আজকের ম্যাচে জয় দিয়ে।

নিউজবিডি৭১/আ/ডিসেম্বর ৯ , ২০১৮




মেসির জোড়া গোলে বড় জয় বার্সার

ডেস্ক রিপোর্ট
নিউজবিডি৭১ডটকম
ঢাকা : স্বরূপে জ্বলে উঠলেন লিওনেল মেসি। চমৎকার দুটি ফ্রি-কিকে বল পাঠালেন জালে। গোলের দেখা পেলেন আক্রমণভাগের অন্য দুই খেলোয়াড় উসমান দেম্বেলে ও লুইস সুয়ারেসও। তাতে এস্পানিওলকে তাদেরই মাঠে উড়িয়ে দিল বার্সেলোনা।

সমালোচনার জবাব বুঝি এভাবেই দিতে হয়! যেই মেসি জিতেছেন পাঁচটি ব্যালন ডি’অর সেই মেসিই এবার ব্যালনের লিস্টে ছিলেন পাঁচ নাম্বারে। নিজের বা পায়ের জাদুতে এক ম্যাচেই সবাইকে চুপ করে দিলেন মেসি।

কাতালান ডার্বিতে এস্পানিওলকে ৪-০ গোলে হারালো বার্সেলোনা। ৪ গোলের দুটিই করেছেন মেসি এবং দুটিই এসেছে দর্শনীয় দুই ফ্রি কিক থেকে। অপর দুই গোল করেন লুইস সুয়ারেজ ও দেম্বেলে।

দেম্বেলে, সুয়ারেজ ও মেসিকে নিয়ে গড়া আক্রমণভাগের সামনে প্রথমার্ধেই মুখ থুবড়ে পড়ে এস্পানিওল। ১৭ মিনিটে গোলের খাতা খুলেন মেসি। প্রায় ২৭ গজ দূর থেকে বা পায়ের নজরকাড়া এক ফ্রি কিকে বার্সাকে ০-১ ব্যবধানে এগিয়ে দেন। এ গোলের ফলে ছোট্ট একটি মাইলফলকও স্পর্শ করেছেন মেসি। প্রথম ফুটবলার হিসেবে লা লিগায় টানা ১৩টি মৌসুম ১০+ গোল করার রেকর্ড গড়লেন তিনি।

২৬ মিনিটে আবারো সেই মেসি ম্যাজিক তবে এবার নিজে গোল না করিয়ে ওসমান দেম্বেলেকে দিয়ে গোল করান। ডান পায়ের কোনাকুনি শটে চোখ ধাঁধানো একটি গোল করেন ফরাসি এ ফরোয়ার্ড। আগের ম্যাচে এটলেটিকো মাদ্রিদের বিপক্ষে তার গোলেই পরাজয় এড়িয়েছিল বার্সা।

প্রথমার্ধে মেসি আরও একটি গোলের সুযোগ পেয়েছিলেন ৩৬ মিনিটে। রাকিতিচের হেড গোলরক্ষক রুখে দিলে রিবাউন্ডে মেসির হেড গোলবারে লেগে ফিরে আসে।

প্রথমার্ধের একদম শেষ মিনিটেও একটি গোল পায় বার্সা। ৪৫ মিনিটে লুইস সুয়ারেজের প্রায় জিরো এঙ্গেল থেকে এস্পানিওল গোলরক্ষকের পায়ের ফাঁকা দিয়ে বল জালে জড়ালে ০-৩ ব্যবধানে এগিয়ে যায় বার্সা।

বিরতি থেকে ফিরেও চলে মেসি শো। ৬৫ মিনিটে আরও একবার বার্সার হয়ে গোল করেন মেসি। আবারো সেই ফ্রি কিক থেকে। চলতি বছরে ফ্রি কিক থেকে এটি মেসির দশম গোল। ক্যারিয়ারে এক ম্যাচে দ্বিতীয়বার ফ্রি কিক থেকে জোড়া গোল করলেন এ যাদুকর। ১১ গোল করে লা লিগায় যুগ্মভাবে ক্রিস্টিয়ান স্টুয়ানির সঙ্গে শীর্ষে উঠে আসলেন মেসি।

এস্পানিওলও বার্সার রক্ষণ দুর্গ ভেঙে ৭২ মিনিটে গোল করে বসে। কিন্তু দুতার্তের গোল ভিএআরের সাহায্যে অফসাইডের কারণে বাতিল হয়। ম্যাচে আর কোনো গোল না হলে ০-৪ ব্যবধানের বড় জয় নিয়েই মাঠ ছাড়ে বার্সা।

নিউজবিডি৭১/আ/ডিসেম্বর ৯ , ২০১৮




প্রথম নারী ব্যালন ডি’অরেই যৌন হয়রানি

নিউজবিডি৭১ডটকম

বিনোদন ডেস্ক:  দিনটা নারী ফুটবলের জন্য ঐতিহাসিক। সতর্ক বার্তাও বটে। নারী ফুটবলকে এগিয়ে নিতে চালু হয়েছে ব্যালন ডি’অর। পুরুষের ফুটবলে যা ১৯৫৬ সাল থেকেই চালু আছে। প্রথম নারী ফুটবলার হিসেবে নরওয়ের আডা হেগেরবার্গ ব্যালন ডি’অর জিতেছেন। আর পুরস্কার নিতে গিয়ে পড়েছেন অস্বস্তিকর পরিস্থিতিতে। অনুষ্ঠানের সঞ্চালক হেগেরবার্গকে নাচতে বলে তাকে যৌন হেনস্তা করেন।

সোমবার প্যারিসে এক জমকালো অনুষ্ঠানে ব্যালন ডি’অরের অভিষেক ট্রফিটা ছুয়ে দেখেন ফ্রান্স ক্লাব লিঁও নারী ফুটবলার আডা হেগেরবার্গ। গেল মৌসুমে তিনি লিগ ও চ্যাম্পিয়নস লিগ জিতেছেন। কিন্তু তার ক্যারিয়ার ও ফুটবলের এই ঐতিহাসিক মুহূর্তে উপস্থিতদেরও অস্বস্তিতে ফেলে দিলেন অনুষ্ঠানের সঞ্চালক ডিজে মার্টিন সলভেইগ।

ট্রফি জয়ের পর মঞ্চে আসা হেগেরবার্গকে নাচতে বলেন ডিজে। কিন্তু সে নাচে ছিল বিশেষ ইঙ্গিত। অর্থাৎ হেগেরবার্গকে ‘টুয়ের্ক’ বা কোমর দুলিয়ে যৌন উত্তেজক নাচ দেখাতে বলেন তিনি।

নারী এই ফুটবলার তাৎক্ষণিক প্রস্তাব নাকচ করে দিয়ে মঞ্চ ছেড়ে যাচ্ছিলেন। রাগে-ক্ষোভে একটু নাচেনও তিনি। পরে অবশ্য সলভেইগ ক্ষমা চেয়েছেন হেগেরবার্গের কাছে। পরে এই নারী ফুটবলার বলেন, ‘ব্যাপারটা যৌন হয়রানি হিসেবে দেখছি না। ব্যালন ডি’অরের আনন্দটা উপভোগ করতে চাই।’

তবে এ নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বেশ বিতর্ক ছড়িয়ে পড়েছে। তাকে ‘টুয়ের্ক’ করতে বলা ফুটবলের একটি ন্যক্কারজনক ঘটনা বলে উল্লেখ করেন এক ফুটবল ব্লগার। ফুটবলের এক আরজে অ্যালেন লিখেছেন, ‘সলভেইগের সৌভাগ্য যে আডা তাঁকে লাথি মেরে গোলপোস্টে পাঠায়নি!’

তিনবারের গ্রান্ড স্লামজয়ী ব্রিটিশ টেনিস তারকা অ্যান্ডি মারে ইনস্টাগ্রামে লিখেছেন, ‘ক্রীড়াঙ্গনে এখনো যৌন হয়রানি আছে। এমবাপ্পে ও মদরিচকে কি প্রশ্ন করা হয়েছে ভাবুন? ওটা স্রেফ মজা…না? নাহ, ব্যাপারটা একটু অন্য।’

নিউজবিডি৭১/বিসিপি/ ৪ ডিসেম্বর, ২০১৮




আট উইকেট হারাল উইন্ডিজ, তাইজুলের পাঁচ উইকেট

নিউজবিডি৭১ডটকম

নিউজ ডেস্ক: জয়ের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নামা উইন্ডিজ শিবিরে শুরুতেই বড় ধাক্কা দিয়েছে বাংলাদেশ। সাকিবের জোড়া আঘাতের পর দুই উইকেট তুলে নেন তাইজুল। এরপর আরও উইকেট তুলে নেন মিরাজ। পরের তিন উইকেট নেন তাইজুল। বাংলাদেশের দেওয়া ২০৪ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে স্পিন ঘূর্ণিতে কাঁপছে তারা।  সর্বশেষ খবর পর্যন্ত ৮ উইকেট হারিয়ে ৭৫ রান তুলেছে সফরকারীরা। তাইজুল ইসলাম নিয়েছেন পাঁচ উইকেট।

চতুর্থ ইনিংসের তৃতীয় ওভারে এসে বাংলাদেশ অধিনায়ক প্রথমে কিয়েরন পাওয়েলকে তুলে নেন। এর পরের ওভারে এসে ফেরান শাই হোপকে। আর তাইজুল তার প্রথম ওভারে এসে তুলে নেন ওপেনার ক্রেগ ব্রাথওয়াট ও রেস্টন চেজকে। নিজের প্রথম বলেই ক্রেগ ব্রাথওয়াটকে ফেরান তিনি। আর পঞ্চম বলে ফেলান চেজকে। এরপর প্রথম ইনিংসের মতো দ্বিতীয় ইনিংসে দ্রুত রান তোলা হেটমায়ারকে ফেরান মেহেদি মিরাজ। তাইজুল বল হাতে ফেরান ডাউরিচ ও বিশুকে । পরে এলবিডব্লিউ করেন কেমার রোচকে।

তৃতীয় দিনের সকালের সেশনেই ৯ উইকেট হারিয়েছে দু’দল। শুরুতে ৫ উইকেটে ৫৫ রান নিয়ে ব্যাট করতে নামে বাংলাদেশ। শুরুতেই উইকেট হারাতে থাকা তারা। এরপর শেষ ইনিংস শুরু করা ওয়েস্ট ইন্ডিজ ষষ্ঠ ওভারের মধ্যে হারায় ৪ উইকেট।

এর আগে বাংলাদেশ তাদের দ্বিতীয় ইনিংসে মাত্র ১২৫ রানে অলআউট হয়ে যায়। দলের হয়ে দ্বিতীয় ইনিংসে সর্বোচ্চ ৩১ রান করেন মাহমুদুল্লাহ। এছাড়া মুশফিক ১৯ এবং মিরাজ করেন ১৮ রান। মিঠুনের ব্যাট থেকে আসে ১৭ রান। দুই ইনিংসে মিলিয়ে ২০৩ রানের লিড পায় বাংলাদেশ। এর আগে প্রথম ইনিংসে ৩২৪ রান তোলে বাংলাদেশ। প্রথম ইনিংসে সফরকারীরা আউট হয় ২৪৬ রানে। বাংলাদেশ লিড পায় ৭৮ রান।

বাংলাদেশের হয়ে প্রথম ইনিংসে দারুণ এক সেঞ্চুরি করেন মুমিনুল। ওয়েস্ট ইন্ডিজের হয়ে হেটমায়ার ও ডাউরিচ করেন ৬৩ করে রান। বাংলাদেশের হয়ে নাঈম হাসান প্রথম টেস্টে নেন ৫ উইকেট। সাকিবের দখলে যায় ৩ উইকেট। এছাড়া ওয়েস্ট ইন্ডিজের প্রথম ইনিংসে ৪ উইকেট নেন শ্যানন গ্যাব্রিয়েল। দ্বিতীয় ইনিংসে বিশু ৪টি এবং চেজ নেন ৩ উইকেট। নিউজবিডি৭১/বিসিপি/২৪ নভেম্বর, ২০১৮




অভিষেকেই ৫ উইকেট নাঈমের

নিউজবিডি৭১ডটকম 
ঢাকাবয়স তার আঠারো ছুঁই ছুঁই। চোখে মুখে কৌশরের ছাপ বেশ বোঝা যায়। এরই মধ্যে বেশ পরিণত তিনি। তার ১৭ বছর বয়সেই বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-১৯, অনূর্ধ্ব-২৩ এবং বাংলাদেশ ‘এ’ দলের হয়ে খেলে ফেলেছেন। সেখানে ধারাবাহিকতা দেখিয়েই জাতীয় দলে এসেছেন তিনি। অভিষেক ম্যাচেই ব্যাটে-বলে নিজের প্রতিভার জানান দিয়েছেন চট্টগ্রামের ছেলে নাঈম হাসান। ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে প্রথম টেস্টের প্রথম ইনিংসে তুলে নিয়েছেন পাঁচ উইকেট।

এর আগে দলের প্রয়োজনে ব্যাট হাতে দারুণ খেলেন নাঈম। নিজের নামের পাশে অলরাউন্ডার লেখা থাকে। কিন্তু বাংলাদেশ দল তাকে শুধু বোলিং বিবেচনায় দলে নিয়েছে। শেষটায় তিনি যে ব্যাট করেছেন তত বেশি প্রত্যাশা করেনি দল। ডানহাতি স্পিনার হিসেবেই দলে ঢুকেছেন তিনি। কিন্তু ওয়েস্ট ইন্ডিজ বোলারদের ব্যাট হাতে তিনি যেভাবে সামলেছেন তা ছিল দারুণ ব্যাপার।

তাইজুল ইসলামের সঙ্গে নবম উইকেটে গড়েছেন ৬৫ রানের জুটি। তাদের ওই প্রত্যেকটি রান মহামূল্যবান হয়ে উঠেছে বাংলাদেশ দলের জন্য। নাঈম হাসান বয়সভিত্তিক দলে অলরাউন্ডার হিসিবেই খেলেন। তাই ব্যাট হাতে তার ভালো করায় অবাক হওয়ার কথা নয়। কিন্তু মেহেদি মিরাজও অলরাউন্ডার হিসেবে দলে অভিষেক হয়। কিন্তু আন্তর্জাতিক অঙ্গনে ব্যাট হাতে মানিয়ে নিতে সময় লেগেছে তার। নাঈম নিলেন না অত সময়।

এরপর নাঈম বল হাতেও ওয়েস্ট ইন্ডিজ বোলারদের একাই গুড়িয়ে দিয়েছেন। নিয়েছেন পাঁচ উইকেট। শুরুতে বাংলাদেশ দলে তার অভিষেক হওয়ার একটু বিস্মিত হয়েছেন অনেকে। সাকিব, মিরাজ ও তাইজুল আছেন দলে। আবার নাঈম কেন। কারণটা বোঝালেন তরুণ এই স্পিনার। সাকিব-তাইজুল শুরুতে তিন উইকেট তুলে নেওয়ার পর আমব্রিস এবং চেজকে ফেরান নাঈম। এরপর হেটমায়ারকে ফেরান মিরাজ। পরের তিন উইকেটই তুলে নেন নাঈম। ছুঁয়ে ফেলেন মাইলফলক। হয়তো জানান দিলেন এই তার পথ চলার শুরু।

নিউজবিডি৭১/বিসি/নভেম্বর ২৩, ২০১৮




আবারও আর্জেন্টিনা দলে ফিরছেন মেসি

ডেস্ক রিপোর্ট
নিউজবিডি৭১ডটকম
ঢাকা : দুঃস্বপ্নের মতো কাটানো বিশ্বকাপটি বোধহয় এখনো ভুলতে পারেননি মেসি। পারেনও না। একটা অধরা বিশ্বকাপের জন্য যে তিনি তার ক্যারিয়ারের সব ট্রফিকেই যে জলাঞ্জলি দিতে প্রস্তুত। আর্জেন্টিনার হয়ে গত ছয়টি ম্যাচে সেই মেসিই নেই দলে। দল জিতলেও মেসি ছাড়া আর্জেন্টিনা দল যেন পানসে। অবশেষে, আর্জেন্টিনা দলে ফিরতে যাচ্ছেন এই ক্ষুদে যাদুকর। ২০১৯ সালের মার্চ মাসেই আবার আর্জেন্টিনার হয়ে মাঠে নামবেন তিনি।

বিশ্বকাপের দ্বিতীয় পর্ব থেকে বিদায় নেয়ার পর ৬টি প্রীতি ম্যাচ খেলেছে আর্জেন্টিনা। যেখানে কেবল ব্রাজিলের বিপক্ষে একটি হার রয়েছে তাদের। বাকি পাঁচটি ম্যাচই নতুন কোচ স্কলানির অধীনে জিতেছে আলিবিসেলস্তারা। সর্বশেষে মেক্সিকোর বিপক্ষে দুটি প্রীতি ম্যাচে ২-০ গোলের ব্যবধানে জিতেছে নতুনদের নিয়ে গড়া আর্জেন্টিনা দল।

ইকার্দি, মার্টিনেজ, দিবালাদের নিয়ে গড়া আর্জেন্টিনা জয় পেলেও সমর্থকদের মন ভরাতে পারেনি আর্জেন্টিনা। অবশেষে আর্জেন্টিনা দলে ফিরতে যাচ্ছেন তিনি। আর্জেন্টিনার টিএনটি স্পোর্টসের রিপোর্টার হার্নান কাস্তিলো এক খবরে জানিয়েছেন মার্চ মাসেই আর্জেন্টিনা দলে ফিরতে যাচ্ছেন মেসি। কোচ লিওনেল স্কলানি চলতি মাসেই মেসির প্রত্যাবর্তনের কথা জানাবেন বলেও জানান তিনি।

মেসিকে ছাড়া যে আর্জেন্টিনা দল কল্পনা করা যায় না সেটা ভালোভাবেই জানেন মেক্সিকোর বিপক্ষে প্রথম গোল পাওয়া মাউরো ইকার্দি। ম্যাচ শেষে তিনি বলেন, ‘মেসি বিশ্বের সেরা খেলোয়াড়। আশা করবো, সে কোপা আমেরিকার আগেই আমাদের সঙ্গে যোগ দেবে। এতে আমাদের শক্তি আরও বাড়বে।’

মূলত কোপা আমেরিকাকে সামনে রেখেই মেসিকে দলে আনতে যাচ্ছেন স্কলানি। ১৯৯৩ সালে সর্বশেষ কোপা আমেরিকা জিতেছিল আর্জেন্টিনা। এরপর বারবার খুব কাছে গিয়েও খালি হাতে ফিরতে হয়েছে ১৪ বারের কোপা জয়ী দলটিকে।

নিউজবিডি৭১/এম/নভেম্বর ২২, ২০১৮




সৌম্যের বিদায়ে শুরুতেই হোঁচট খেল বাংলাদেশ

নিউজবিডি৭১ডটকম
ঢাকা : ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে প্রথম টেস্টে ব্যাটিংয়ে নেমে শুরুতেই হোঁচট খেল বাংলাদেশ। খেলার প্রথম ওভারেই কেমার রোচের বলে ওপেনার সৌম্য সরকার কট বিহাইন্ড হয়ে ফিরে গেছেন সাজঘরে।

জিম্বাবুয়ে সিরিজে না থাকলেও চট্টগ্রাম টেস্টে লিটন দাসের পরিবর্তে ডাকা হয় সৌম্যকে। কিন্তু ডাক মেরে সাজঘরে ফিরে নামের সঙ্গে সুবিচার করতে পারলেন না তিনি। এ প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত বাংলাদেশের সংগ্রহ দুই ওভার শেষে এক উইকেটে ১২ রান।

বৃহস্পতিবার সকালে চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে টস জিতে ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন বাংলাদেশ দলের অধিনায়ক সাকিব আল হাসান। সকাল সাড়ে ৯টায় ম্যাচটি ম্যাচটি শুরু হয়েছে। চট্টগ্রাম টেস্ট দিয়ে অভিষেক হচ্ছে অফ স্পিনার নাঈম হাসানের। দলে ফিরেছেন সৌম্য সরকার ও সাকিব আল হাসান।

জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে হোম সিরিজে চোটের কারণে দলে ছিলেন না টেস্ট অধিনায়ক সাকিব আল হাসান। তবে ক্যারিবীয়দের বিপক্ষে তিনি দলে ফিরেছেন।

নিউজবিডি৭১/এম/নভেম্বর ২২, ২০১৮




ইনজুরি নিয়ে মাঠ ছাড়লেন নেইমার

নিউজবিডি৭১ডটকম 
ঢাকাইংল্যান্ডে অনুষ্ঠিত ক্যামেরুনের বিপক্ষে প্রীতি ম্যাচে বড় দুঃসংবাদ পেয়েছে ব্রাজিল ভক্তরা। সংবাদটা আরও খারাপ হয়ে এসেছে নেইমারের ক্লাব পিএসজির জন্য। ক্যামেরুনের বিপক্ষে ম্যাচের শুরুতে ইনজুরি নিয়ে মাঠ ছাড়েন ব্রাজিল অধিনায়ক। তার ইনজুরি কতটা বড় তা এখনই বলার জো নেই। তবে চলতি মাসে লিভারপুলের বিপক্ষে পিএসজির চ্যাম্পিয়নস লিগের ম্যাচের আগে এটা বড় চিন্তার কারণ।

উরুর মাংস পেষিতে চোট পাওয়ায় কাতর নেইমার। ছবি: বিআর

ব্রাজিল অধিনায়ক নেইমার বুধবার ক্যামেরুনের বিপক্ষে শুরুতেই মাঠে নামেন। কিন্তু বল পায়ে নেইমার শো দেখানোর আগেই চোট পান তিনি। ম্যাচের আট মিনিটের মাথায় উরুর মাংস পেশিতে চোট পান এই ব্রাজিল তারকা। এরপর ওই ইনজুরি নিয়ে মাঠ ছাড়েন তিনি। তার বদলি হিসেবে মাঠে নামানো হয় এভারটনের ফরোয়ার্ড রির্কালিসনকে।

ক্যামেরুনের বিপক্ষে প্রীতি ম্যাচে  নেইমার। অবশ্য পায়ের জাদু দেখানোর আগেই ইনজুরিতে পড়েন তিনি। ছবি: মেট্রো

নেইমার ইনজুরি পড়ায় পিএসজির দুশ্চিন্তা বেড়ে গেলো। আগামী ২৮ নভেম্বর চ্যাম্পিয়নস লিগে বাঁচা-মরার লড়াইয়ের মাঠে নামবে পিএসজি। ওই ম্যাচের আগে ইনজুরিতে পড়লেন নেইমার। ওদিকে উরুগুয়ের বিপক্ষে প্রীতি ম্যাচে ফ্রান্স তারকা এমবাপ্পে কাঁধের ইনজুরি নিয়ে মাঠ ছেড়েছেন। এই দুই তারকা যদি চ্যাম্পিয়নস লিগের সামনের ম্যাচে খেলতে না পারে তবে বড় ধাক্কা খাবে পিএসজি।

ইনজুরি নিয়ে মাঠ ছাড়া নেইমারের স্বান্তনায় কোচ তিতে। ছবি: ফক্স স্পোর্টস

নেইমারের ইনজুরি নিয়ে ব্রাজিলের তারকাদের ইনজুরির তালিকা বেশ লম্বা হলো। ব্রাজিলের দলে থাকা কাসেমিরো-কুতিনহো ইনজুরির কারণে দল থেকে ছিটকে পড়েছেন আগেই। এদের মধ্যে কুতিনহো বার্সার অনুশীলনে ফিরেছেন। তার আগে ইনজুরিতে পড়েন মার্সেলো। তাদের কাতারে যোগ হলেন নেইমার।

নিউজবিডি৭১/বিসি/নভেম্বর ২১, ২০১৮




রির্কালিসনের গোলে ক্যামেরুনকে হারাল ব্রাজিল

নিউজবিডি৭১ডটকম 
ঢাকাম্যাচের ৪৫ মিনিটের মাথায় এভারটনের তরুণ তারকা রির্কালিসনের গোলে জয় নিয়ে মাঠ ছেড়েছে ব্রাজিল। কিন্তু জয়ের উল্লাস নিয়ে মাঠ ছাড়তে পারেনি তারা। কারণ দলের সেরা তারকা নেইমার ম্যাচের শুরুতে চোট নিয়ে মাঠ ছাড়েন। এরপর ব্রাজিল আক্রমণ করে খেললেও ব্রাজিল সুলভ জয় তারা পায়নি। তবে রাশিয়া বিশ্বকাপের পরে খেলা সবকটি ম্যাচে জয় নিশ্চিত করে বছর শেষ করেছে ব্রাজিল। এবার তাদের চোখ থাকবে ঘরের মাঠে আগামী বছরের কোপা আমেরিকার দিকে।

ক্যামেরুনের বিপক্ষে ব্রাজিলের একমাত্র গোলটি করেন রির্কালিসন। ছবি: মেইল অনলাইন

ম্যাচের মাত্র ৮ মিনিটের মাথায় চোট নিয়ে মাঠ ছাড়েন ব্রাজিল অধিনায়ক নেইমার। তার বদলি হিসেবে মাঠে নামানো হয় রির্কালিসনকে। নেইমারের বদলি নেমে তার অভাব মেটানোর প্রত্যাশা ছিল তার ওপর। ২১ বছর বয়সী এই তরুণ সেই প্রত্যাশা মেটালেন। তার বুলেট গতির হেড ঠেকানোর কোন উপায় জানা ছিল না ক্যামেরুন গোলরক্ষকের। তবে পরে উইলিয়ামস-জেসুসরা আর ব্যবধান বাড়াতে পারেননি। শেষমেষ ওই ১-০ গোলের জয় নিয়ে মাঠ ছাড়তে হয় তাদের।

ক্যামেরুনের বিপক্ষে ম্যাচের আট মিনিটে ইনজুরি নিয়ে মাঠ ছাড়েন নেইমার। ছবি: বিআর

ম্যাচের অবশ্য বল দখল, সঠিক পাস এবং আক্রমণে বেশ এগিয়ে ছিল ব্রাজিল। নেইমার ইনজুরি নিয়ে উঠে গেলেও আক্রমণে ধার কমেনি তাদের। কিন্তু গোল ব্যবধান বাড়াতে পারেনি তারা। ম্যাচের ৬১ ভাগ বল ছিল সেলেকাওদের অধীনে। ম্যাচে ৬৩১টি সঠিক পাস দিয়েছে তারা। এছাড়া গোলের মুখে আক্রমণ করেছে মোট ২৩টি। তা থেকে গোটা চারের গোল পেয়ে যেতে পারতো ব্রাজিল। কিন্তু ভাগ্য তিতের দলের প্রতি সুপ্রসন্ন হয়নি।

ইনজুরি নিয়ে মাঠ ছাড়া নেইমারের স্বান্তনায় দলের কোচ তিতে। ছবি: ফক্স স্পোর্টস

ক্যামেরুনও অবশ্য বেশ কয়েকটি আক্রমণ করেছে। কিন্তু ব্রাজিলের জাল খুঁজে পায়নি তা। ব্রাজিলের হয়ে এ ম্যাচে শুরুর একাদশে জায়গা পায় নাপোলির মিডফিল্ডার অ্যালান। দারুণ খেলেন তিনি। উরুগুয়ের বিপক্ষে ম্যাচের পর ব্রাজিল দলের লম্বা দৌড়ের ঘোড়া হিসেবে নিজেকে প্রমাণ করলেন তিনি। এছাড়া ডিফেন্ডার পাবলো ছিলেন শুরুর একাদশে। গোলবারের নিচে ছিলেন না অ্যালিসন। তার বদলে সুযোগ দেওয়া হয় এদেরসনকে।

নিউজবিডি৭১/বিসি/নভেম্বর ২১, ২০১৮