”সরকার ইতিহাস ভোলেননি”

নিউজবিডি৭১ডটকম
ঢাকাঃ সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ইতিহাস ভোলেননি। ইতিহাসের ওপর দাঁড়িয়ে বাস্তবতার নিরিখে আর সময়ের প্রয়োজনেই জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দলের (জাসদ) সঙ্গে আওয়ামী লীগ রাজনৈতিক ঐক্য করেছে।

বুধবার দুপুরে রাজধানীর উপকণ্ঠ সাভারে ঢাকা-আরিচা মহাসড়কের হেমায়েতপুরে সড়ক সংস্কারকাজের অগ্রগতি পরিদর্শনে গিয়ে সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন সেতুমন্ত্রী।

ইতিহাসের অবতারণা করে ওবায়দুল কাদের আরো বলেন, ‘তবে তার অর্থ এই নয় যে, আমরা ইতিহাসকে ভুলে গেছি। কারণ ইতিহাসকে ভোলা যায় না।’

জাসদ নিয়ে সমলোচনায় মুখর দলের সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ আশরাফুল ইসলামের বক্তব্যের সমালোচনা করে সেতুমন্ত্রী বলেন, ইতিহাসের অনেক সত্য আছে। সেসব কথা সব সময় বলাও সমীচীন নয়। কখন, কোন কথা বলা যাবে, সে সম্পর্কে পরিষ্কার দৃষ্টিভঙ্গিও থাকা দরকার।

ঈদের পর বিএনপির কঠোর আন্দোলনের ঘোষণা নিয়ে দলটির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার কঠোর সমালোচনা করেন ওবায়দুল কাদের। তিনি বলেন, ঈদ এলেই বিএনপির আন্দোলনের বিষয়টি পরিচিত বুলি।

মন্ত্রী জানান, আসন্ন ঈদে যানজটপ্রবণ ১৫টি স্থানে পুলিশের সহায়তায় স্বেচ্ছাসেবক হিসেবে থাকবে এক হাজার রোভার স্কাউট। এসব স্থানে নারী ও শিশুদের জন্য রাখা হবে ভ্রাম্যমাণ টয়লেট।

ওবায়দুল বলেন, সড়কের পরিস্থিতির জন্য নয়, যানজটে ঈদে ঘরমুখো মানুষের দুর্ভোগের কারণ ফিটনেসবিহীন যানবাহন।

সড়ক পরিদর্শনের সময় মন্ত্রীর সঙ্গে ছিলেন স্থানীয় সাংসদ ডা. এনামুর রহমান, সড়ক ও জনপথ (সওজ) বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী সবুজ উদ্দিন প্রমুখ।

নিউজবিডি৭১/এম আর/১৫ জুন ২০১৬




প্রকৃত জঙ্গিদের ধরা হচ্ছে, না ভুতুড়ে জঙ্গিদের ধরা হচ্ছে: রিজভী

নিউজবিডি৭১ডটকম
ঢাকাঃ সাঁড়াশি অভিযানে প্রকৃত জঙ্গিদের ধরা হচ্ছে, না ভুতুড়ে জঙ্গিদের ধরা হচ্ছে—এই প্রশ্ন রেখেছেন বিএনপির জ্যেষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী। তিনি অভিযোগ করেন, ঈদের আগে পুলিশের গ্রেপ্তার-বাণিজ্য আরও রমরমা করতে সাধারণ মানুষকে আটক করা হচ্ছে বলে মানুষ বিশ্বাস করে।

বুধবার দুপুরে রাজধানীর নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে রিজভী এ কথা বলেন।

রিজভী অভিযোগ করেন, জঙ্গিবিরোধী চলমান অভিযান উদ্দেশ্যপ্রণোদিত। এই অভিযান সারা দেশের মানুষকে উদ্বিগ্ন করে তুলেছে। প্রকৃত দুষ্কৃতকারীদের ধরা নয়, দেশ ও বিশ্বের মানুষকে বিভ্রান্ত করাই এই অভিযানে মুখ্য উদ্দেশ্য। এখন পর্যন্ত আড়াই হাজারের বেশি বিএনপির নেতা-কর্মী ও সমর্থককে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

রিজভী দাবি করেন, দেশের কারাগারগুলোতে ধারণক্ষমতার চেয়ে প্রায় ৫০ হাজারের বেশি মানুষ বাস করছে। আটক হওয়া ব্যক্তিরা সেখানে মানবেতর জীবন যাপন করছেন। শৌচাগারে যাওয়ার প্রতিযোগিতায় একজন আরেকজনের মাথা ফাটাচ্ছেন।

রিজভী বলেন, এখন পর্যন্ত বিভিন্ন হত্যাকাণ্ডে জড়িত প্রকৃত জঙ্গিরা গ্রেপ্তার হয়েছে বলে কারও জানা নেই। পুলিশ দেড় শর কাছাকাছি সন্দেহভাজন জঙ্গি গ্রেপ্তার করেছে বলে জানালেও প্রকৃত অপরাধ সংঘটনকারীদের ধরতে পেরেছে কি না, তা নিশ্চিত করতে পারেনি।

নিউজবিডি৭১/এম আর/১৫ জুন ২০১৬




পদ্মা সেতুর নাম “শেখ হাসিনা সেতু” করার দাবি জাতীয় সংসদে…

নিউজবিডি৭১ডটকম
ঢাকাঃ পদ্মা নদীর ওপর নির্মাণাধীন দেশের সর্ববৃহৎ সেতু পদ্মা সেতুর নাম প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নামে করার দাবি জানিয়েছেন আওয়ামী লীগের সংসদ সদস্য ধীরেন্দ্র দেবনাথ শম্ভু। বুধবার সকালে জাতীয় সংসদে প্রস্তাবিত ২০১৬-১৭ অর্থবছরের বাজেটের ওপর সাধারণ আলোচনায় অংশ নিয়ে তিনি এই দাবি জানান।

পদ্মা সেতুর নাম শেখ হাসিনা সেতু করার জোর দাবি সংসদে উত্থাপন করে ধীরেন্দ্র দেবনাথ বলেন, “পদ্মা সেতুর নাম ‘শেখ হাসিনা সেতু’ করার জোর দাবি জানাচ্ছি। এই দাবি আমার একার না, আমাদের সবার দাবি।”

ধীরেন্দ্র দেবনাথ শম্ভু বলেন, ‘আশা করি, জাতিও মেনে নেবে। কারণ পদ্মা সেতু নিয়ে যে ষড়যন্ত্র হয়েছিল প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তা মোকাবিলা করে এই সেতু নির্মাণ করছেন। তাই এদেশের মানুষ যাতে শেখ হাসিনাকে হাজার বছর মনে রাখে সেজন্য এই সেতুর নাম শেখ হাসিনা সেতু করার দাবি জানাচ্ছি।’

নিউজবিডি৭১/এ আর/জুন ১৫, ২০১৬




”ইতিহাসের নিরিখেই সবকিছু মূল্যায়িত হবে”

নিউজবিডি৭১ডটকম
ঢাকাঃ পঁচাত্তরে বঙ্গবন্ধু হত্যাকাণ্ডের ক্ষেত্র তৈরির জন্য জাসদকে দায়ী করে দেওয়া সৈয়দ আশরাফুল ইসলামের বক্তব্যকে ‘অনভিপ্রেত, দুঃখজনক ও অপ্রাসঙ্গিক’ বলে মন্তব্য করেছেন দলটির সভাপতি হাসানুল হক ইনু।

তিনি বলেন, ‘পঁচাত্তরের প্রতিটি ঘটনা এখন ইতিহাসের পাতায় লিপিবদ্ধ করা আছে। ইতিহাস ইতিহাসের মতো বিশ্লেষণ করবে। মনে রাখবেন বাহাত্তর থেকে পঁচাত্তর পর্যন্ত আওয়ামী লীগ কতটুকু ভুল করেছে, জাসদ কতটুকু ভুল করেছে তার বিচার-বিশ্লেষণ করার সময় এটা নয়। তবে এটা ইতিহাস বিচার করবে। ইতিহাসের নিরিখেই সবকিছু মূল্যায়িত হবে।’

ছাত্রলীগের এক অনুষ্ঠানে ক্ষমতাসীন দলের সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ আশরাফের ওই বক্তব্যের দুদিন পর বুধবার তথ্যমন্ত্রী ইনুর এই প্রতিক্রিয়া এলো।

বুধবার সচিবালয়ে এক অনুষ্ঠানের পর সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে ইনু বলেন, ‘আমরা মনে করি এই সময়ে ১৪ দলের অভ্যন্তরে কোনো কাদা ছোড়াছুড়ি করা উচিত নয়। এটা ইতিহাস চর্চার সময় নয়। জঙ্গিবাদ সম্পূর্ণরূপে ধ্বংস করার সময়।’

এদিকে, জাসদ ইনুর অংশের সাধারণ সম্পাদক শিরিন আখতার মঙ্গলবার বলেন, ‘শেখ হাসিনার নেতৃত্বে মুক্তিযুদ্ধের পক্ষের শক্তি ঐক্যবদ্ধ হয়ে দেশকে যখন এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছে, হাসানুল হক ইনু যখন জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে যুদ্ধ ঘোষণা করেছেন, ঠিক সেই মুহূর্তে সৈয়দ আশরাফের এই বক্তব্য জাতীয় ঐক্যকে বিনষ্ট করবে।’

অবশ্য ইনু বলেছেন, সৈয়দ আশরাফের মন্তব্যে ১৪ দলের ঐক্যে কোনো প্রভাব পড়বে বলে তিনি মনে করেন না। পঁচাত্তরের পূর্বাপর ঘটনার বিশ্লেষণ করেই শেখ হাসিনা, আওয়ামী লীগ ও জাসদ ঐক্যের সিদ্ধান্ত নিয়েছে। তার ভিত্তিতে ১৪ দল গড়ে উঠেছে। এ ধরনের মন্তব্যে ঐক্য ও চলার পথ ক্ষতিগ্রস্ত হবে না বল তিনি জানিয়েছেন।

১৪ দলের ঐক্য ধরে রাখা দরকার মন্তব্য করে তথ্যমন্ত্রী বলেন, ‘যখন আমরা দেশটাকে সম্পূর্ণভাবে নিরাপত্তার দিকে নিয়ে যাচ্ছি তখন ১৪ দলের ভিতরে কেউই কাদা ছোঁড়াছুড়ি করবেন না। আমি সব নেতাকর্মীকে আহ্বান জানাব তারা যেন কোনো উস্কানিতে পা না দেন। বলবো- উত্তেজিত হবেন না, ধৈর্য্য রাখুন, ঐক্য রাখুন, সেটাই দেশকে নিরাপত্তা দেবে।’

তিনি বলেন, ‘মানুষের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে সর্বাত্মক ঐক্যবদ্ধ প্রচেষ্টা দরকার। এজন্য শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আমরা একসঙ্গে কাজ করে যাচ্ছি।’

নিউজবিডি৭১/এম আর/১৫ জুন ২০১৬




‘ক্ষুধা, দারিদ্র্য আর শোষণের চেয়েও বড় বাঁধা এখন সন্ত্রাস আর জঙ্গিবাদ’

নিউজবিডি৭১ডটকম
ঢাকাঃ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদ বিশ্বের অন্যান্য অঞ্চলের মতো দক্ষিণ এশিয়াতেও বিস্তৃতি লাভ করেছে যা আঞ্চলিক শান্তি, নিরাপত্তা ও উন্নয়নের জন্য হুমকিস্বরূপ।

বুধবার দশম জাতীয় সংসদের একাদশতম অধিবেশনে প্রধানমন্ত্রীর জন্য নির্ধারিত প্রশ্নোত্তরে তিনি এসব কথা বলেন। সরকারদলীয় সংসদ সদস্য আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী দক্ষিণ এশিয়াকে একটি দারিদ্র্যমুক্ত শান্তিপূর্ণ অঞ্চল হিসেবে গড়ে তুলতে আপনার সরকার গত মেয়াদ থেকে এই পর্যন্ত কী কী কূটনৈতিক পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে।

এর উত্তরে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদ বিশ্বের অন্যান্য অঞ্চলের মতো দক্ষিণ এশিয়ায়ও বিস্তৃতি লাভ করেছে যা আঞ্চলিক শান্তি, নিরাপত্তা ও উন্নয়নের জন্য হুমকিস্বরুপ। এরূপ বাস্তবতায়, নিরাপত্তা সহযোগিতার মাধ্যমে দক্ষিণ এশিয়াকে একটি শান্তিপূর্ণ অঞ্চল হিসেবে প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে এ অঞ্চলের দেশগুলোর একত্রে কাজ করতে পারে।’

আঞ্চলিক সংস্থা সার্ক ও বিমসটেকের আওতায় বিভিন্ন নিরাপত্তামূলক চুক্তি বা সমাঝোতা কথা তুলে ধরে প্রধানমন্ত্রী আরো বলেন, ‘সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদ নির্মূলের মাধ্যমে দক্ষিণ এশিয়াকে একটি শান্তিপূর্ণ অঞ্চল হিসেবে গড়ে তোলার লক্ষ্যে এসবই গুরুপ্তপূর্ণ পদক্ষেপ।’

তিনি আরো বলেন, ‘দ্বিপাক্ষিকভাবে ভারতের সঙ্গে বিভিন্ন পর্যায়ের প্রাতিষ্ঠানিক ব্যবস্থাদির মাধ্যমে আমরা সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদ নির্মূলে এবং নিরাপত্তা সহযোগিতার ক্ষেত্রে পরস্পর পরস্পরকে সহায়তা করছি। এরই ধারাবাহিকতায় ভারত এবং বাংলাদেশের মধ্যে বিভিন্ন পর্যায়ে আলোচনা ও কার্যক্রম অব্যাহত আছে।’

শেখ হাসিনা বলেনে, ‘আমাদের মহান মুক্তিযদ্ধের মূল চেতনা ছিল ক্ষুধা, দারিদ্র্য শোষণ ও বঞ্চনামুক্ত বাংলাদেশ গড়া। আমরা মুক্তিযুদ্ধের এ চেতনার বিস্তৃতি ঘটিয়ে বাংলাদেশের পাশাপাশি দক্ষিণ এশিয়াকেও একটি দারিদ্র্যমুক্ত ও শান্তিপূর্ণ অঞ্চলে পরিণত করতে কাজ করে যাচ্ছি।’

দারিদ্র্য দূরীকরণ যেহেতু শান্তি প্রতিষ্ঠার একটি অন্যতম পূর্ব শর্ত। তাই অর্থনৈতিকভাবে শক্তিশালী দক্ষিণ এশিয়া স্বাভাবিকভাবে শান্তিপূর্ণ দক্ষিণ এশিয়ায় রূপ নেবে বলেও প্রত্যাশা ব্যক্ত করেন তিনি।

নিউজবিডি৭১/এ আর/জুন ১৫, ২০১৬




”পারলে সকারের ওপর আক্রমণ করুন, জনগণের উপর নয়”

নিউজবিডি৭১ডটকম
ঝিনাইদহঃ আগুন যুদ্ধে ব্যর্থতার পর খালেদা জিয়ার নতুন কৌশল হচ্ছে গুপ্ত হত্যা- মন্তব্য করেছেন তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু। মঙ্গলবার বিকালে দুর্বৃত্তদের হাতে নিহত ঝিনাইদহ সদর উপজেলার করাতিপাড়া গ্রামের পুরোহিত আনন্দগোপাল গাঙ্গুলীর পরিবারের সঙ্গে দেখা শেষে ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ আয়োজিত এক সমাবেশে বিশেষ অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

তথ্যমন্ত্রী বলেন, এই গুপ্তহত্যার মধ্য দিয়ে খালেদা জিয়া সাধারণ মানুষের গায়ে হাত দিয়েছেন। সাধারণ মানুষকে আতঙ্কিত করার চেষ্টা করেছেন।

খালেদা জিয়ার উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, সাধারণ মানুষের গায়ে হাত না দিয়ে আপনি আমাকে মারেন, নাসিম ভাইকে মারেন, সরকারের ওপর আক্রমণ করেন। সাধারণ মানুষের গায়ে হাত দেবেন না। যারা সাধারণ মানুষের গায়ে হাত দিয়েছে তাদের খুঁজে বের করে ধ্বংস করে দেওয়া হবে।

সদর উপজেলার নলডাঙ্গা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি এরফান বিশ্বাসের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম। বিশেষ অতিথি ছিলেন বিমান ও পর্যটনমন্ত্রী রাশেদ খান মেনন।

সমাবেশে উপস্থিত ছিলেন ঝিনাইদহ-১ আসনের সংসদ সদস্য আব্দুল হাই, ঝিনাইদহ-৪ আসনের সংসদ সদস্য আনোয়ারুল আজিম আনার, ঝিনাইদহ-৩ আসনের সংসদ সদস্য অধ্যক্ষ নবী নেওয়াজ, ন্যাপ নেতা অ্যাডভোকেট এনামুল হক, জেলা প্রশাসক মাহবুব আলম তালুকদার, পুলিশ সুপার আলতাফ হোসেন, জেলা পরিষদ প্রশাসক আব্দুল ওয়াহেদ জোয়ার্দ্দার, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও পৌর মেয়র আলহাজ সাইদুল করিম মিন্টু, বাংলাদেশ হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদ কেন্দ্রীয় কমিটির সহ-সভাপতি কনক কান্তি দাস প্রমুখ।

নিউজবিডি৭১/এম আর/১৪ জুন ২০১৬




সন্ত্রাস ছড়িয়ে জঙ্গিবাদের উত্থান ঘটিয়ে দেশ অস্থির করবে সরকার: খালেদা

নিউজবিডি৭১ডটকম
ঢাকাঃ সন্ত্রাস ছড়িয়ে দিয়ে জঙ্গিবাদের উত্থান ঘটিয়ে সরকার দেশে অস্থির পরিবেশ সৃষ্টি করবে বলে অভিযোগ করেছেন বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া।

মঙ্গলবার রাজধানীর ইন্টারন্যাশনাল কনভেনশন সিটি, বসুন্ধরার (আইসিসিবি) রাজদর্শন হলে অ্যাসোসিয়েশন অব ইঞ্জিনিয়ার্স, বাংলাদেশ (অ্যাব) আয়োজিত ইফতার মাহফিলে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ অভিযোগ করেন।

খালেদা জিয়া বলেন, তিনি (প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা) বিদেশিদের বলে বেড়াচ্ছেন সন্ত্রাস দমন করবেন। আসলে তিনি সন্ত্রাস দমন করবেন না, সারা দেশে সন্ত্রাস ছড়িয়ে দিয়ে জঙ্গিবাদের উত্থান ঘটিয়ে দেশে অস্থির পরিবেশ সৃষ্টি করবেন।

অ্যাব’র সভাপতি আ ন হ আখতার হোসেনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, স্থায়ী কিমিটর সদস্য ড. আব্দুল মঈন খান, লে. জেনারেল (অব.) মাহবুবুর রহমান, ভাইস চেয়ারম্যান আব্দুল্লাহ আল নোমান, এয়ার ভাইস মার্শাল (অব.) আলতাফ হোসেন চৌধুরী, চৌধুরী কামাল ইবনে ইউছুফ, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আমির খসরু মাহমুদ চৌধুরী, অ্যাডভোকেট খন্দকার মাহবুব হোসেন প্রমুখ।

নিউজবিডি৭১/এম আর/১৪ জুন ২০১৬




”জাসদ নিয়ে সৈয়দ আশরাফের মন্তব্য ব্যক্তিগত”

নিউজবিডি৭১ডটকম
ঢাকাঃ সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল (জাসদ) নিয়ে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও জনপ্রশাসনমন্ত্রী সৈয়দ আশরাফুল ইসলামের মন্তব্য ব্যক্তিগত। এ বিষয়ে দলীয় বা সরকারি ফোরামে কোনো সিদ্ধান্ত হয়নি।

মঙ্গলবার দুপুরে রাজধানীর মানিক মিয়া অ্যাভিনিউতে বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ সড়ক পরিবহন কর্তৃপক্ষের (বিআরটিএ) মোবাইল কোর্টের কার্যক্রম পরিদর্শনে গিয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী এ কথা বলেন।

সোমবার বিকেলে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের টিএসসি মিলনায়তনে ছাত্রলীগের এক সভায় আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম বলেন, মুক্তিযুদ্ধের চেতনাকে বিকৃত ও বিনষ্ট করতে চেয়েছিল জাসদ, এমনকি বঙ্গবন্ধুকে হত্যার পরিবেশও তৈরি করেছিল দলটি। যারা বৈজ্ঞানিক সমাজতন্ত্রের নামে অতিবিপ্লবী, তাদের হটকারী আখ্যা দিয়ে শতভাগ ভণ্ড বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

এ বক্তব্যের প্রতিবাদে মঙ্গলবার এক সমাবেশে জাসদের অন্যতম নেতা ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক অধ্যাপক আনোয়ার হোসেন প্রধানমন্ত্রীকে উদ্দেশ্য বলেন, ‘আপনি আপনার মন্ত্রীকে থামান, ঐক্য বিনষ্টকারীকে থামান। আপনাকে পরিষ্কার করতে হবে, আপনি ঐক্য চান কি চান না। আপনি মুখে ঐক্যের কথা বলবেন, আর ঐক্য বিনষ্টকারীরা কাঁদা ছুড়াছুড়ি করবে। জাসদ এসব মেনে নিতে পারে না।’

আনোয়ার হোসেন আরও বলেন, ‘আপনার মন্ত্রীকে থামান। অবিলম্বে তার মুখ বন্ধ করুন।’

সৈয়দ আশরাফকে উদ্দেশ্য করে আনোয়ার হেসেন বলেন, ‘আপনি বরং জনপ্রশাসনে মন দেন। কিভাবে আপনি মন্ত্রীত্ব চালান তা আমরা জানি। সেখানে মন দিন।’

এদিকে, ঈদে মহাসড়কে দুর্ঘটনা কমানোর বিষয়ে এক প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী বলেন, ১৪৪টি স্পট চিহ্নিত করা হয়েছে। ১৬৫ কোটি টাকা ব্যয়ে একটি প্রকল্পের ৮০ শতাংশ শেষ হয়েছে।

বঙ্গবন্ধু সেতু এলাকা ও ঢাকা-আরিচা মহাসড়ক এখন আর মরণফাঁদ নয়, নিরাপদ সড়কের মডেল হিসেবে গড়ে তোলা হয়েছে বলেও জানান মন্ত্রী।

রাস্তা ভালো করা হলেও গাড়ির চালকদের বেপরোয়া মানসিকতা, চালক-পথচারীদের সচেতনতার অভাব ও সমন্বয়ের অভাব রয়েছে বলে মনে করেন তিনি।

মন্ত্রী জানান, বিআরটিএর মঙ্গলবারের অভিযানে মিটারে না চলা সিএনজিচালিত অটোরিকশার চালক ও হেলমেট ছাড়া মোটরসাইকেলে আরোহীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হয়। রাজধানীতে চলা চারটি মোবাইল কোর্টে দুই শতাধিক মামলা করা হয়। জরিমানা আদায় করা হয় প্রায় দেড় লাখ টাকা।

মন্ত্রী আরও জানান, অভিযানের সময় দুটি মোটরসাইকেল জব্দ ও ১০টি সিএনজিচালিত অটোরিকশা ডাম্পিংয়ে পাঠানো হয়।

বিআরটিএ’র চেয়ারম্যান মো. নজরুল ইসলাম এবং নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটট জোহরা খাতুন ও মুহম্মদ আব্দুস সালাম ভ্রাম্যমাণ অভিযান চলাকালে উপস্থিত ছিলেন।

নিউজবিডি৭১/এম আর/১৪ জুন ২০১৬




”মানবাধিকার কমিশনকে আরও সক্রিয় হতে হবে”

নিউজবিডি৭১ডটকম
ঢাকাঃ সরকারকে আরও দায়িত্বশীল করার লক্ষ্যে জাতীয় মানবাধিকার কমিশনকে আরও সক্রিয় হতে হবে বলে মন্তব্য করেছেন রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ।

মঙ্গলবার জাতীয় মানবাধিকার কমিশনের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. মিজানুর রহমানের নেতৃত্বে কমিশনের ৮ সদস্যের একটি প্রতিনিধি দল এখানে বঙ্গভবনে রাষ্ট্রপতির কাছে কমিশনের বার্ষিক রিপোর্ট-২০১৫ পেশ করতে গেলে তিনি এ কথা বলেন।

রাষ্ট্রপতি হামিদ আরও বলেন, কমিশন সরকারের কর্মকান্ডের স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতা নিশ্চিত করার ক্ষেত্রে একটি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করতে পারে।

রাষ্ট্রপতি কমিশনের সার্বিক কর্মকান্ডের প্রশংসা করেন। প্রতিনিধি দল রিপোর্টের বিভিন্ন দিক সম্পর্কে রাষ্ট্রপতিকে অবহিত করেন। তারা জাতীয় মানবাধিকার কমিশনকে আরো কার্যকর করার লক্ষ্যে কমিশনের সম্মানিত সদস্যদেরকে পূর্ণকালীন সদস্য হিসেবে নিয়োগ করার জন্য সুপারিশ করেন।

রাষ্ট্রপতির সংশ্লিষ্ট সচিবগণ সে সময় উপস্থিত ছিলেন। রাষ্ট্রপতির প্রেস সচিব জয়নাল আবেদিন পরে সংবাদমাধ্যমকে এসব কথা জানান।

নিউজবিডি৭১/এম আর/১৪ জুন ২০১৬




৫ম শ্রেণিতে পরীক্ষা বন্ধের প্রস্তাব মন্ত্রীসভায়…

নিউজবিডি৭১ডটকম
ঢাকাঃ প্রাথমিক শিক্ষা সমাপনী (পিইসি) পরীক্ষা বন্ধের সুপারিশ করে মন্ত্রিসভায় প্রস্তাব পাঠাচ্ছে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়। মঙ্গলবার ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সিনেট ভবনে ‘অষ্টম শ্রেণি পর্যন্ত প্রাথমিক শিক্ষা এবং বাস্তবতা শীর্ষক’ সেমিনার শেষে সাংবাদিকদের করা এক প্রশ্নের জবাবে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রী মোস্তাফিজুর রহমান এ কথা বলেন।

তিনি বলেন, ‘প্রাথমিক সমাপনী একটাই হওয়া উচিৎ। যেহেতু প্রাথমিক শিক্ষা অষ্টম শ্রেণি পর্যন্ত করা হয়েছে, সে ক্ষেত্রে প্রাথমিক সমাপনী পরীক্ষা অষ্টম শ্রেণিতে হওয়াই যৌক্তিক। পঞ্চম শ্রেণি থেকে পিইসি পরীক্ষা বন্ধের জন্য প্রয়োজনীয় কাগজপত্রের সারসংক্ষেপ আমরা ক্যাবিনেটে পাঠাবো।’

তিনি বলেন, ‘পিইসি পরীক্ষার প্রচলন ক্যাবিনেট থেকে করা হয়েছিল এবং এটা বাতিল বা অন্য যা কিছু, সব ক্ষমতা ক্যাবনেটের।’ মন্ত্রী বলেন, ‘আমরা চাচ্ছি এ বছর থেকেই পিইসি বন্ধ করা হোক।’

সাংবাদিকদের করা প্রশ্নের উত্তরে মন্ত্রী আরো বলেন, ‘প্রাথমিক সমাপনী মূল্যায়ন পরীক্ষা। এ বছর বন্ধ না হলে, ক্ষতি তো নেই। এ বছর বন্ধ হলে কি তারা পঞ্চম শ্রেণির বার্ষিক পরীক্ষা দেবে না? পিইসি তো মূল্যায়ন পরীক্ষা। অন্যান্য ক্লাসে যেমন পরীক্ষা নেয়া হয় পঞ্চম শ্রেণিতেও একই পরীক্ষা নেয়া হয়।’

মন্ত্রী বলেন, ‘আমি তো ভিনগ্রহে থাকি না। জনমানুষের কথা আমরা উপলদ্ধি করি। তাদের আবেদনের প্রেক্ষিতে আমরা পিইসি বন্ধের এ প্রস্তবনার সারসংক্ষেপ ক্যাবিনেটে পাঠাবো। ক্যাবিনেটের ঘোষণা যা হয় তাই বাস্তবায়ন করা হবে।’

উল্লেখ্য, পিইসি পরীক্ষা বন্ধে বছরের শুরু থেকে মানববন্ধন করে আসছে আভিভাবকরা। ধীরে ধীরে পিইসি বন্ধ তাদের দাবিতে রূপান্তরিত হয়। এ দাবি বাস্তবায়নে বিভিন্ন সময় মানববন্ধের পাশপাশি বিক্ষোভ মিছিলও করেছে অভিভাবকরা।

অভিভাবকদের দাবি, পিইসি পরীক্ষার কারণে শিশুদের শারীরিক-মানসিক বিকাশ বাধাগ্রস্ত হচ্ছে। স্কুলে স্কুলে কোচিং বাণিজ্যের দৌরাত্ম বেড়ে যাচ্ছে। অতিরিক্ত পড়ার চাপ এবং সাধারণ শিক্ষার্থীদের অভিভাবকদের অতিরিক্ত অর্থ খরচ ইত্যাদি কারণে অভিভাবকরা পিইসি পরীক্ষা বাতিলের দাবিতে আন্দোলন শুরু করে। ১৮ মে প্রাথমিক শিক্ষা অষ্টম শ্রেণি পর্যন্ত করায় তাদের এ দাবি আরো জোরালো হয়।

নিউজবিডি৭১/এ আর/জুন ১৪, ২০১৬




৬০ হাজার বাংলাদেশিকে মাল্টিপল ভিসা দিচ্ছে ভারতীয় হাইকমিশন!

নিউজবিডি৭১ডটকম
ঢাকাঃ ভারতের হাইকমিশনের চলমান ঈদ ভিসা ক্যাম্পের মাধ্যমে প্রায় ৬০ হাজার বাংলাদেশিকে পর্যটক হিসেবে এক বছরের ভারতীয় মাল্টিপল ভিসা দেওয়া হচ্ছে। কয়েক মাসের মধ্যে আবার এ ধরনের ভিসা ক্যাম্প আয়োজনের পরিকল্পনা করছে ঢাকাস্থ ভারতীয় হাইকমিশন। পরের ভিসা ক্যাম্পটি ঢাকা ছাড়াও অন্য কোথাও আয়োজনের বিষয়টি ভারতীয় হাইকমিশন বিবেচনায় রেখেছে।

ঢাকায় ভারতীয় হাইকমিশনার হর্ষ বর্ধন শ্রিংলা সোমবার সকালে এক সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানান। ঈদ ভিসা ক্যাম্প উপলক্ষে বারিধারায় ভারতীয় হাইকমিশনের নতুন চ্যান্সেরি ভবনে ওই সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়।

evcicভারতীয় হাইকমিশনের নতুন চ্যান্সেরি ভবনে ৪ জুন থেকে ১২-দিনের ঈদ ভিসা ক্যাম্প শুরু হয়েছে, যা শেষ হবে ১৬ জুন। ভিসার ক্যাম্প চলাকালে পর্যটন ভিসা আবেদনকারীরা ই-টোকেন ছাড়াই সরাসরি আবেদনপত্র জমা দিতে পারবেন। প্রতিদিন সকাল আটটা থেকে বেলা দুইটা পর্যন্ত আবেদনপত্র জমা দেওয়া যাবে। স্টেট ব্যাংক অব ইন্ডিয়া পরিচালিত ভিসা আবেদন কেন্দ্রে আবেদনপত্র জমা নেওয়ার জন্য বিশেষ কাউন্টারেরও ব্যবস্থা করা হয়েছে।

স্টেট ব্যাংক ইন্ডিয়া পরিচালিত আইভ্যাকের (ভারতীয় ভিসা আবেদন কেন্দ্র) নিয়মিত কার্যক্রমের অংশ হিসেবে বাংলাদেশের বিভিন্ন স্থানের ১১টি কেন্দ্রে ভিসা প্রক্রিয়া চলছে। ওই কেন্দ্রগুলোতে প্রতিদিন সাড়ে তিন হাজার লোককে ভিসা দেওয়া হয়। ঈদ ভিসা ক্যাম্প চলার সময় আইভ্যাকের ১১টি কেন্দ্রেও ভারতীয় ভিসা দেওয়ার প্রক্রিয়া অব্যাহত আছে।

হর্ষ বর্ধন শ্রিংলা সাংবাদিকদের বলেন, ভারতীয় ভিসার চাহিদা বাড়ার কারণে বাংলাদেশের নাগরিকদের জন্য ভিসা প্রক্রিয়া সহজ করার জন্য আগামী কয়েক মাসে আরও কিছু পদক্ষেপ নেওয়া হবে। এই প্রক্রিয়ার অংশ হিসেবে পরীক্ষামূলকভাবে এবার প্রথমবারের মতো ঈদ ভিসা ক্যাম্পের আয়োজন করা হয়েছে।

মঙ্গলবার থেকে বৃহস্পতিবার পর্যন্ত ক্যাম্পের শেষ তিন দিনে আইভ্যাকের (ভারতীয় ভিসা আবেদন কেন্দ্র) কর্মীদের সহায়তায় ভিসা দানকারী লোকবল বাড়ানো হবে। কারণ শেষের তিন দিনে ক্যাম্পের জনবল বাড়িয়ে বেশি সংখ্যক লোককে ভিসা দেওয়ার পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছে।

তিনি জানান, ক্যাম্প শুরুর পর প্রথম দিন ছয় হাজার এবং দ্বিতীয় দিন দুই হাজার লোক ভিসা পেয়েছেন। সোমবার প্রায় ১০ হাজার লোক ভিসা পেয়েছেন।

ভারতীয় হাইকমিশনার জানান, এবারের ক্যাম্পে সুষ্ঠুভাবে ভিসা দেওয়া এবং ভবিষ্যতে আবার এ ধরনের বিষয় দুটি বিবেচনায় নিয়ে ক্যাম্পের আয়োজন করা হয়। আরও ভালো প্রস্তুতি নিয়ে আগামী কয়েক মাসের মধ্যে আবার এ ধরনের ক্যাম্প আয়োজনের পরিকল্পনা আছে।

হর্ষ বর্ধন শ্রিংলা বলেন, প্রথম ঈদ ক্যাম্পের মাধ্যমে ৫০ থেকে ৬০ কিংবা তার চেয়ে বেশি সংখ্যক লোক এক বছরের জন্য ভারতের মাল্টিপল ভিসা পাবেন।

ভারতীয় হাইকমিশনার বলেন, ভিসার ক্রমবর্ধমান চাহিদা ও ভিসা প্রক্রিয়া সহজতর করার জন্য বেশ কিছু পদক্ষেপ নেওয়ার বিষয় বিবেচনায় আছে। এসব পদক্ষেপ চূড়ান্ত করার আগে কি ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে সেটি বলা সম্ভব নয়।

তিনি জানান, এবারের ঈদ ভিসা ক্যাম্পের সময় বাড়ানোর কোনো পরিকল্পনা নেই। তবে আগামী কয়েক মাসের মধ্যে ঢাকা ছাড়াও অন্য কোথাও এ ধরনের ক্যাম্প আয়োজনের বিষয়টি ভাবা হচ্ছে।

নিউজবিডি৭১/এ আর/জুন ১৪, ২০১৬




খালেদার প্রেস সচিবের বিরুদ্ধে পরকীয়া ও নারী নির্যাতন আইনে মামলা!

নিউজবিডি৭১ডটকম
ঢাকা: বিএনপির চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার প্রেস সচিব মারুফ কামাল খান সোহেলের বিরুদ্ধে নির্যাতনের মামলা করেছেন তার স্ত্রী তানিয়া খান। সোমবার রাতে মোহাম্মদপুর থানায় মামলাটি হয় বলে জানিয়েছেন থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জামালউদ্দিন মীর।

ওসি জানান, “পিটিয়ে গুরুতর আহত করার অভিযোগ নিয়ে মারুফ কামাল খান সোহেলের স্ত্রী রক্তাক্ত অবস্থায় থানায় এসে মামলা করেছেন। আমরা তদন্তপূর্বক ব্যবস্থা নিবো।’

বিএনপি নেতৃত্বাধীন ২০দলীয় জোটের অবরোধের সময় নাশকতার একাধিক মামলায় আসামি হওয়ায় মারুফ কামাল খান সোহেল তার মোহাম্মদপুরের বাসায় নিয়মিত থাকেন না বলে জানা গেছে।

মামলার এজাহারে মারুফ কামালের বিরুদ্ধে ‘একাধিক নারীর সঙ্গে পরকীয়া সম্পর্ক’ করার অভিযোগও এনেছেন তার স্ত্রী। তিনি বলেছেন, পরকীয়া সম্পর্কের প্রতিবাদ করায় তাকে শারীরিক ও মানসিকভাবে নির্যাতন এবং বিভিন্ন রকম ‘হুমকি’ দেওয়া হচ্ছিল।এর জের ধরে সোমবার বিকালে মোহাম্মপুরের বাসায় কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে মারুফ কামাল মারধর করেন বলে তানিয়ার অভিযোগ।

এজাহারে তিনি বলেন, ‘সে উত্তেজিত হইয়া আমাকে চুলের মুঠি ধরিয়া এলোপাতাড়ি মারপিট করে এবং লোহার রড দিয়ে হত্যার উদ্দেশ্যে মাথায় আঘাত করে।”

তানিয়া খান বলেন, তার চিৎকারে আশপাশের লোকজন ছুটে আসে এবং পরে বাসার কেয়ারটেকার তাকে সোহরাওয়ার্দী হাপাতালে নিয়ে চিকিৎসার ব্যবস্থা করেন।

নিউজবিডি৭১/এ আর/জুন ১৪, ২০১৬