মক্কার রাস্তায় রাস্তায় হাজিদের ‘ফ্রি আপ্যায়ন’

ডেস্ক রিপোর্ট
নিউজবিডি৭১ডটকম
ঢাকা : পবিত্র ভূমি মক্কার রাস্তায় রাস্তায় হাজিদের আপ্যায়ন করছেন সৌদি আরবের বিত্তবানরা। কাবা শরীফের অদূরে গাড়ি করে চিকেন, বিফ, মাটন বিরিয়ানি, খেজুর, কেক, বিস্কুট, জুস, চকলেট, কমলা, আঙুর, মাল্টা ও পানিসহ হরেক রকম খাবার এবং পানীয় হাজিদের মাঝে বিতরণ করা হয়। বিশ্বের বিভিন্ন দেশ থেকে আগত ধর্মপ্রাণ মুসল্লিরা লাইনে দাঁড়িয়ে এসব খাবার সংগ্রহ করেন।

সরেজমিন মিসফালাহ ও ইব্রাহিম খলিল রোড ঘুরে দেখা গেছে, প্রতিদিন দুপুর ও বিকেলে একই ব্যক্তি প্রাইভেটকার কিংবা বড় ভ্যানগাড়িতে করে খাবার ও পানীয় নিয়ে আসছেন। মক্কাতে বেশি তাপমাত্রার কারণে পানি সংগ্রহের জন্য হাজিদের সবচেয়ে বেশি দীর্ঘলাইন দেখা যায়। ফ্রি খাবার সংগ্রহে আফ্রিকা ও এশিয়ার মানুষের ভিড় বেশি। কোথায় কোথায় খাবার বিতরণ করতে এসে বিত্তবানরা বিপাকে পড়েন। বিশেষ করে আফ্রিকান ছেলে-মেয়েরা লাইন ভেঙে খাবার ছিনিয়ে নিয়ে যায়।

এসব তৈলাক্ত খাবার খেয়ে অনেকে ডায়রিয়াসহ বিভিন্ন পেটের পীড়ায় ভুগছেন বলে জানালেন বাংলাদেশ হজ মেডিকেল টিমের প্রধান ডা. জাকির হোসেন খান।

তিনি বলেন, অনেক বাংলাদেশি হজযাত্রী সৌদিয়ানদের রান্না করা রিচ ফুড খেয়ে অভ্যস্ত না হওয়ায় পীড়ায় আক্রান্ত হয়ে আমাদরে কাছে আসছেন। খাবার খাওয়ার আগে ভালো করে হাত ধোঁয়ার পরামর্শ দেন তিনি।

নিউজবিডি৭১/আ/আগস্ট ১৬ ,২০১৮




যুক্তরাষ্ট্রে প্রথম ইঞ্জেকশনের মাধ্যমে মৃত্যুদণ্ড কার্যকর

ডেস্ক রিপোর্ট
নিউজবিডি৭১ডটকম
ঢাকা : যুক্তরাষ্ট্রের নেব্রাস্কায় ‘ফেনটানিল’ প্রয়োগের মাধ্যমে প্রথম মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করা হয়েছে। মঙ্গলবার চারটি রাসায়নিক পদার্থের সমন্বয়ে তৈরি ফেনটানিল শরীরে প্রবেশ করিয়ে দু‘টি হত্যা মামলার আসামি ক্যারে ডিন মুরের মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করা হয়।

ডিন মুর হলেন যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যপশ্চিমাঞ্চলীয় প্রদেশগুলোর মধ্যে গত ২১ বছরে প্রথম মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত। আর তারচেয়েও গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হলো, তিনিই প্রথম ইঞ্জেকশন প্রয়োগের মাধ্যমে মৃত্যুদণ্ড কার্যকর হওয়া আসামি।

১৯৭৯ সালে সংঘটিত দুইটি খুনের ঘটনায় অভিযুক্ত ছিলেন তিনি। মুর ৩৮বছর ধরে মৃত্যুদণ্ডে দণ্ডিত অবস্থায় বন্দি ছিলেন। পরবর্তীতে গত ২ আগস্ট তিনি তার মৃত্যুদণ্ড কার্যকরের আবেদন জানিয়ে একটি লিখিত বিবৃতি পেশ করেন।

নেব্রাস্কার জন্য মুরের মৃত্যুদণ্ড কার্যকর একটি অত্যন্ত তাৎপর্যপূর্ণ ঘটনা। কেননা সেখানে ২০১৫ মৃত্যুদ- রহিত করা হয়। তবে, সেবছরই একটি গণভোটের মধ্যদিয়ে তা পুনর্বহাল করা হয়। ১৯৯৭ সালে শেষবারেরমত ইলেক্ট্রিক চেয়ারে বসিয়ে মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করা হয়েছিলো। এএফপি

নিউজবিডি৭১/আ/আগস্ট ১৬ ,২০১৮




২০২২ সালের মধ্যে মহাকাশে মানুষ পাঠাবে ভারত : মোদি

ডেস্ক রিপোর্ট
নিউজবিডি৭১ডটকম
ঢাকা : ভারতের ৭২তম স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে জাতির উদ্দেশ্যে ভাষণ দিয়েছেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। বুধবার নয়াদিল্লির লালকেল্লা থেকে দেওয়া ভাষণে নরেদ্র মোদি দেশের সার্বিক বিষয়ের পাশাপাশি সরকারের ভবিষ্যৎ পরিকল্পনার কথাও জানান। খবর এনডিটিভির

নরেন্দ্র মোদি বলেন, আজ লালকেল্লায় দাঁড়িয়ে আমি দেশবাসীকে একটি সুখবর দিতে চাই। ভারত চিরকালই মহাকাশ বিজ্ঞানে উন্নত ছিল। বর্তমান সরকারের লক্ষ্য ২০২২ সালের মধ্যে একজন ভারতীয়কে মহাকাশে পাঠানো।

তিনি বলেন, দেশের ছেলেমেয়েরা পতাকা হাতে পৌঁছে যাবে মহাকাশে। আমাদের কাছে দলের স্বার্থের চেয়েও দেশের স্বার্থ সবার আগে।

আগামী বছরের সাধারণ নির্বাচন আগে দেশের প্রধানমন্ত্রী হিসেবে এটিই ছিল তার পঞ্চম অর্থ্যাৎ শেষ স্বাধীনতা দিবস ভাষণ।

এছাড়া মোদি তার ভাষণে বিশ্বের বৃহত্তম সরকারি তহবিল সমৃদ্ধ স্বাস্থ্য সেবার কথা ঘোষণা করেন। সেবাটির নাম ‌‘আয়ুষ্মান-ভারত জাতীয় স্বাস্থ্য সুরক্ষা প্রকল্প’। কয়েকটি রাজ্যে আগামী সেপ্টেম্বরের শেষে এটি জরুরি ভিত্তিতে শুরু করা হবে। এ সেবাকে ‘মোদি কেয়ার’ হিসেবেও অভিহিত করা হচ্ছে। প্রতি পরিবার ৫ লাখ টাকার স্বাস্থ্যবীমা পাবে। মোট ১০ কোটি দরিদ্র পরিবার এই প্রকল্পের সুবিধা পাবে।

নিউজবিডি৭১/আ/আগস্ট ১৬ ,২০১৮




সিঙ্গাপুরের সাথে চুক্তির ব্যাপারে মাহাথিরের নতুন চিন্তা

ডেস্ক রিপোর্ট
নিউজবিডি৭১ডটকম
ঢাকা : মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী মাহাথির মুহাম্মাদ বলেছেন, সিঙ্গাপুরে মালয়শিয়া কর্তৃক সরবরাহকৃত পানির দাম বর্তমানের চেয়ে দশগুন হওয়া উচিৎ। দ্য এসোসিয়েটেড প্রেস এর সাথে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে তিনি এসব কথা বলেন।

মাহাথির বলেন, সিঙ্গাপুরে পানি বিক্রিতে দাম বৃদ্ধির ব্যাপারটি বিবেচনা করা হচ্ছে। বিদেশে পানি সরবরাহের মাধ্যমে যা আসছে তার চেয়ে বেশি আসা উচিৎ।

১৯৬২ সালে ১০০ বছরের জন্য একটি চুক্তি সই হয়। সেখানে মালয়েশিয়া .০৩ রিঙ্গিটের বিনিময়ে সিঙ্গাপুরকে ৪ হাজার ৫শ’ ৪৬ লিটার পানি সরবরাহ করবে বলা হয়। সিঙ্গাপুরের প্রতিদিন ১.১৩৬ বিলিয়ন লিটার পানি উত্তোলনের অধিকার প্রতিষ্ঠিত হয় এবং মালয়েশিয়া থেকে আমদানিকৃত পানির শতকরা ২ ভাগ .৫০ রিঙ্গিটের বিনিময়ে ১ হাজার গ্যালন হিসাবে বিক্রি করতে পারে।

মালয়েশিয়া ১৯৮৭ সালে চুক্তিটি পুনর্বিবেচনা করা হয়। এবং পানির মূল্য বৃদ্ধির ব্যাপারটি গুরুত্ব পায়। উভয় দেশই এটি পুর্ব নির্ধারিত দাম পরিবর্তনের ব্যাপারটি বিবেচনা শুরু করে।

১৯৯৮ সালে এশিয়ার অর্থনৈতিক সঙ্কটের সময় মাহাথির সিঙ্গাপুরের কাছে ঋণ চাইলে সিঙ্গাপুরের সরকার দীর্ঘ মেয়াদে পানি সরবরাহের নিশ্চয়তা চেয়েছিল। কিন্তু ইস্যুটি অমীমাংসিত থেকে যায়। এবারে ক্ষমতায় এসেই মাহাথির বর্তমান বাজার দর অনুযায়ী পানির দাম পুন নির্ধারণে উদ্যোগী হয়।

নিউজবিডি৭১/আ/আগস্ট ১৬ ,২০১৮




শহিদুল আলমকে মুক্তি দেওয়ার আহ্বান রুশনারা-রুপার

ডেস্ক রিপোর্ট
নিউজবিডি৭১ডটকম
ঢাকা : কারাবন্দি দৃক গ্যালারির প্রতিষ্ঠাতা ও আন্তর্জাতিক পুরস্কারপ্রাপ্ত আলোকচিত্রী শহিদুল আলমকে মুক্তি দিতে বাংলাদেশ সরকারের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত বৃটিশ পার্লামেন্টের দুই এমপি রুশনারা আলি ও রুপা হক।

বৃটেনের বেথনাল গ্রিন অ্যান্ড বো আসনে পার্লামেন্ট সদস্য রুশনারা আলি এক বিবৃতিতে বলেছেন, আমার সংসদীয় আসন থেকে বহু মানুষের আবেদন পেয়েছি। তারা শহিদুল আলমের বন্ধু। তাকে গ্রেফতার করার পর থেকে তারা সহযোগিতা চাইছেন এবং অবিলম্বে তার মুক্তির আহ্বান জানিয়েছেন।

আলিং সেন্ট্রাল অ্যান্ড একটনের এমপি রুপা হক এ বিষয়ে বাংলাদেশি হাইকমিশনার ও বৃটিশ পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে একটি চিঠি লিখেছেন। এতে তিনি শহিদুল আলমের বিরুদ্ধে মামলা প্রত্যাহার করতে বাংলাদেশ সরকারের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন।

রুপা হক লিখেছেন, অনুগ্রহ করে আপনাদের ক্ষমতা প্রয়োগ করে তার (শহিদুল) বিরুদ্ধে আনা মামলা প্রত্যাহারে বাংলাদেশ সরকারের প্রতি আহ্বান জানান। তার পরিবার, বন্ধুবান্ধব, বাংলাদেশ ও বিদেশে তার অনুসারীরা এবং আমি সবচেয়ে বেশি উদ্বিগ্ন, তাকে যে অবস্থায় আদালতে উপস্থাপন করা হয়েছে তা নিয়ে।

নিউজবিডি৭১/আ/আগস্ট ১৬ ,২০১৮




লিবিয়ায় গণঅভ্যুত্থান চলাকালে হত্যার দায়ে ৪৫ জনের মৃত্যুদণ্ড

ডেস্ক রিপোর্ট
নিউজবিডি৭১ডটকম
ঢাকা : লিবিয়ায় ২০১১ সালে গণঅভ্যুত্থান চলাকালে রাজধানী ত্রিপোলিতে সংঘটিত হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে জড়িত থাকার দায়ে ৪৫ ব্যক্তিকে ফায়ারিং স্কোয়াডে মৃত্যুদণ্ড দেওয়া হয়েছে।

বুধবার লিবিয়ার একটি আপিল আদালত এ রায় দিয়েছে বলে এক বিবৃতিতে জানিয়েছে দেশটির বিচার মন্ত্রণালয়, খবর বার্তা সংস্থা রয়টার্সের।

বিবৃতিতে মামলার বিস্তারিত জানানো হয়নি; তবে বিচার মন্ত্রণালয়ের এক কমর্কর্তা জানিয়েছেন, লিবিয়ার সাবেক নেতা মুয়াম্মার গাদ্দাফি ত্রিপোলি থেকে পালিয়ে যাওয়ার ও ক্ষমতাচ্যুত হওয়ার অল্প আগে তার অনুগত বাহিনীগুলোর দ্বারা সংঘটিত হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে মামলাগুলোর সম্পর্ক আছে।

রায়ে অভিযুক্ত আরও ৫৪ জনের প্রত্যেককে পাঁচ বছর করে কারাদণ্ডের আদেশ দেওয়া হয়েছে, অপর ২২ জন খালাস পেয়েছেন।

২০১১ সালে গণঅভ্যুত্থান চলার সময় অন্তত ২০ ব্যক্তিকে হত্যার দায়ে অভিযুক্তদের এসব শাস্তি দেওয়া হয়েছে।

রায় দেওয়ার সময় আদালতে বিবাদী পক্ষের আইনজীবী ও অভিযুক্তদের স্বজনরা উপস্থিত ছিলেন, কিন্তু অভিযুক্তরা উপস্থিত ছিলেন না। বিচার মন্ত্রণালয়ের প্রকাশ করা একটি ছবিতে আদালতের ভিতরে কালো পোশাক পরা বিচারকদের পাশে বড় বন্দুক হাতে দুই রক্ষীকে দেখা গেছে।

লিবিয়ায় ২০১১ সালের পর থেকে দেওয়া মৃত্যুদণ্ডগুলো কার্যকর হয়েছে বলে শোনা যায়নি। গাদ্দাফি ক্ষমতাচ্যুত ও নিহত হওয়ার পর থেকেই দেশটি বিভিন্ন প্রতিদ্বন্দ্বী শিবিরের মধ্যে বিভক্ত হয়ে পড়ে এবং পরবর্তী কয়েক বছর ধরে টালমাটাল পরিস্থিতি ও সশস্ত্র লড়াই চলতে থাকে।

আন্তর্জাতিক মানবাধিকার গোষ্ঠী অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনালের সর্বশেষ বার্ষিক প্রতিবেদনে লিবিয়ার আদালত ব্যবস্থাকে ‘অকার্যকর’ বলে বর্ণনা করা হয়েছে। এতে বলা হয়েছে, ২০১১ সাল থেকে বন্দি অনেকে বিনাবিচারে আটকা পড়ে আছেন এবং তারা নিজেদের আটক অবস্থার বিরুদ্ধে চ্যালেঞ্জ করারও কোনো সুযোগ পাচ্ছেন না।

নিউজবিডি৭১/আ/আগস্ট ১৬ ,২০১৮




মধ্যরাতে ইন্টারনেট বন্ধ রাখার পরিকল্পনা মালয়েশিয়ার

ডেস্ক রিপোর্ট
নিউজবিডি৭১ডটকম
ঢাকা : সামাজিক মাধ্যম এবং অনলাইন ভিডিওর প্রতি আসক্তি দূর করতে রাতভর ইন্টারনেট পরিষেবা বন্ধ রাখার কথা চিন্তা করছে মালয়েশিয়ার সরকার। পরিকল্পনা অনুযায়ী, প্রতিদিন রাত ১২টা থেকে পরদিন ভোর ৬টা পর্যন্ত ইন্টারনেট পরিষেবা বন্ধ রাখার বিষয়টি সরকারের বিবেচনায় রয়েছে।

কিশোর বয়সীরা রাতভর যেভাবে অনলাইনে ভিডিও ও সোশ্যাল নেটওয়ার্কিং সাইটগুলোয় বুদ হয়ে থাকছে তা নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন মালয়েশিয়ার উপ-স্বাস্থ্যমন্ত্রী লি বুন চে। তাদেরকে এসব থেকে দূরে রাখতেই মধ্যরাত থেকে ইন্টারনেট পরিষেবা বন্ধ রাখার পরিকল্পনা করা হচ্ছে।

তিনি বলেন, মূলত ১৭ বছরের কম বয়সী ছেলেমেয়েদের স্বাস্থ্যের কথা ভেবেই এই পদক্ষেপ গ্রহণ করা হচ্ছে। তিনি জানান, কিশোর বয়সের ছেলে-মেয়েরা যেন দিনে এক থেকে দু-ঘণ্টার বেশি অনলাইনে না থাকতে পারে সে ব্যবস্থাই করা হবে।

নিউজবিডি৭১/এম কে/১৫ আগস্ট, ২০১৮




ইতালিতে সেতু ধসে নিহত বেড়ে ৩৫

নিউজবিডি৭১ডটকম
ঢাকা : ইতালির বন্দর নগরী জেনোয়ায় একটি সেতু ধসে নিহতের সংখ্যা বেড়ে ৩৫ জনে দাঁড়িয়েছে। সেতুর প্রায় ১০০ মিটার অংশ ধসে পড়ার পর বহু গাড়ি ধ্বংসস্তূপের নিচে চাপা পড়েছে।

১৯৬০ সালে নির্মিত এ সেতুটি ২০১৬ সাল থেকে পুনর্নির্মাণের কাজ চলছিল।

পুলিশ জানিয়েছে, সেতুটি ধসে পড়ার কারণে সেখানকার রেল যোগাযোগ বন্ধ হয়ে গেছে। নিহত হওয়ার খবর প্রকাশের পর এ দুর্ঘটনাকে অত্যন্ত দুঃখজনক উল্লেখ করে টুইটারে একটি পোস্ট দিয়েছেন ইতালির যোগাযোগমন্ত্রী দানিলো তোনিনেল্লি।

স্থানীয় সংবাদমাধ্যম নিহতের সংখ্যা আরও বেশি বলে উল্লেখ করেছে। ফায়ার ব্রিগেড জানায়, স্থানীয় সময় মঙ্গলবার আনুমানিক বেলা সাড়ে ১১টার দিকে সেতুটির একটি অংশ ধসে পড়ে। এ সময় সেখানে মুষলধারে বৃষ্টি হচ্ছিল।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, ওই সময় ব্রিজের ওপর আট থেকে নয়টি গাড়ি ছিল।

নিউজবিডি৭১/এম কে/১৫ আগস্ট, ২০১৮




ইদলিবে বিস্ফোরণে শিশুসহ নিহত ৩৯

ডেস্ক রিপোর্ট
নিউজবিডি৭১ডটকম
ঢাকা : সিরিয়ার উত্তর-পশ্চিমের বিদ্রোহী অধ্যুষিত প্রদেশ ইদলিবে এক বিস্ফোরণে ১২ শিশুসহ নিহত হয়েছে অন্তত ৩৯ জন।

বলা হচ্ছে, সারমাদা শহরে অবস্থিত ঐ ভবনে একজন অস্ত্র চোরচালানকারীর গোলাবারুদ মজুদ করা ছিল।

একজন পর্যবেক্ষক ও সংবাদদাতাদের মতে, এখনো অনেকে নিখোঁজ রয়েছেন। খবর বিবিসির।

সিরিয়ার শেষ বিদ্রোহী অধ্যুষিত এলাকা ইদলিব। সিরিয় সেনাবাহিনীর পরবর্তী লক্ষ্য মনে করা হচ্ছে এটিকে।

রাশিয়া এবং ইরান সমর্থিত সিরীয় সরকার গত কয়েক মাসে দেশের ভেতরে বিদ্রোহী ও ইসলামপন্থীদের বিরুদ্ধে কঠোর অভিযান চালায়।

সংবাদ সংস্থা এএফপি’র একজন প্রতিনিধি জানায়, রোববার সারমাদা শহরের উদ্ধারকর্মীরা বুলডোজার ব্যবহার করে ধ্বংসস্তূপের নিচ থেকে আটকে পড়া মানুষ উদ্ধার করে।

ইদলিবের বেসামরিক প্রতিরক্ষা দলের একজন সদস্য জানান,‘বহু বেসামরিক নাগরিকসহ অনেকগুলো ভবন রীতিমতো গুড়িয়ে দেয়া হয়েছে।’

যুক্তরাজ্যভিত্তিক মানবাধিকার সংস্থা সিরিয়ান অবজার্ভেটরি ফর হিউম্যান রাইটস জানিয়েছে এখনো অনেক মানুষ নিখোঁজ রয়েছে।

ধরাণা করা হচ্ছে, ওইসব ভবনে থাকা অধিকাংশ মানুষই বিদ্রোহী যোদ্ধাদের পরিবারের সদস্য, যারা অন্যান্য এলাকা থেকে পালিয়ে ইদলিবে আশ্রয় নিয়েছিলেন।

সিরিয়ায় নতুন অভিযান
সিরিয়ায় নিজেদের বিমান ঘাঁটি মাইমিমের কাছে চলে আসা একটি ড্রোন গুলি করে ভূপাতিত করার কথা জানিয়েছে রাশিয়ার সামরিক বাহিনী। শনিবার এ ঘটনা ঘটেছে বলে রাশিয়ার বার্তা সংস্থা টিএএসএস-র বরাতে জানিয়েছে বার্তা সংস্থা রয়টার্স।

টিএএসএসের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, সিরিয়ার ইদলিব প্রদেশের‘ডি-এস্কেলেশন’জোন থেকে ড্রোনটি উড়ানো হয়েছিল এবং এটি ‘অবৈধ সামরিক গোষ্ঠীগুলো’নিয়ন্ত্রণ করছিল বলে জানিয়েছে মস্কো। ড্রোন ভূপাতিত করার এ ঘটনায় কেউ হতাহত হয়নি এবং কোনো ক্ষয়ক্ষতিও হয়নি। রয়টার্স।

নিউজবিডি৭১/এম কে/আগস্ট ১৪ , ২০১৮




সম্পর্ক জোরদারে একমত ইরান-রাশিয়া

ডেস্ক রিপোর্ট
নিউজবিডি৭১ডটকম
ঢাকা : নিজেদের মধ্যে পারস্পরিক সহযোগিতার বিষয়ে একমত প্রকাশ করেছে রাশিয়া ও ইরান। কাজাখস্তানের বন্দরনগরী আকতাউয়ে ইরানের প্রেসিডেন্ট হাসান রুহানি ও রুশ প্রেসিডেন্ট ভøাদিমির পুতিনের মধ্যে এক বৈঠকে এই ঐকমত্য হয়।

দুই প্রেসিডেন্ট দ্বিপক্ষীয়, আঞ্চলিক ও আন্তর্জাতিক নানা ইস্যুতে আলোচনা করেছেন। কাস্পিয়ান সাগরের সম্পদ বণ্টনের বিষয়ে এ সাগর তীরবর্তী পাঁচ দেশের মধ্যে ঐতিহাসিক চুক্তি স্বাক্ষরের মধ্যেই নিজেদের মধ্যে দ্বিপক্ষীয় বৈঠক করেন তারা।

বৈঠকে প্রেসিডেন্ট রুহানি রাশিয়ার সাথে সব ক্ষেত্রে দ্বিপক্ষীয় সম্পর্ক আরো শক্তিশালী করার আগ্রহ প্রকাশ করেন। তিনি বলেন, সিরিয়ায় আইএসের বিপক্ষে যুদ্ধে ইরান ও রাশিয়ার মধ্যকার সহযোগিতা ইতিবাচক প্রভাব ফেলেছে এবং আইএস সম্পূর্ণ নির্মূল না হওয়া পর্যন্ত এই সহযোগিতা অব্যাহত রাখা উচিত।

ওই বৈঠকে ভøাদিমির পুতিন তার দেশের সাথে ইরানের ক্রমবর্ধমান সম্পর্কের কথা উল্লেখ করে বলেন, দ্বিপক্ষীয় স্বার্থের ভিত্তিতে এ সম্পর্ক আরো শক্তিশালী করতে রাশিয়ারও আগ্রহ রয়েছে।

তিনি পাশ্চাত্যের সাথে ইরানের স্বাক্ষরিত পরমাণু সমঝোতাকে একটি আন্তর্জাতিক ও গুরুত্বপূর্ণ চুক্তি হিসেবে উল্লেখ করে বলেন, যুক্তরাষ্ট্র এ সমঝোতা থেকে বেরিয়ে যাওয়ার পর এখন বাকি দেশগুলোর উচিত কঠিনভাবে এটা বাস্তবায়নে নেমে পড়া।

কাজাখস্তানের বন্দরনগরী আকতাউয়ে রোববার রাশিয়া, আজারবাইজান, কাজাখস্তান, তুর্কমেনিস্তান ও ইরানের শীর্ষনেতাদের বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। তাদের উপস্থিতিতে দুই দশকের বেশি সময় ধরে আলোচনার পর কাস্পিয়ান সাগরের সম্পদ বণ্টন নিয়ে চুক্তি স্বাক্ষর হয়।

ওই চুক্তিতে ২৪টি অনুচ্ছেদ রয়েছে, যার মধ্যে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ অনুচ্ছেদ হচ্ছে এই সাগরে বাইরের কোনো দেশের সামরিক উপস্থিতি থাকতে পারবে না। এ ছাড়া এ সাগর দিয়ে বাইরের কোনো দেশ কোনো সামরিক সরঞ্জাম পরিবহন করতে পারবে না। পাশাপাশি সদস্য দেশগুলোর কেউ তাদের নিজেদের কোনো সামরিক ঘাঁটি বাইরের কোনো দেশের কাছে হস্তান্তর করতে পারবে না।

এ দিকে কাস্পিয়ান সাগরের তেল ও গ্যাস ভাগাভাগি নিয়ে এক ঐতিহাসিক চুক্তি করেছে রাশিয়া, ইরান, কাজাখস্তান, তুর্কমেনিস্তান ও আজারবাইজান। রোববার দেশগুলো তেল ও গ্যাস কিভাবে দেশগুলোর মধ্যে ভাগ করা যায় তা নিয়ে একমত হয়। এর ফলে সাগরে সম্পদ অনুসন্ধান নিয়ে ২২ বছর ধরে চলমান বিরোধের অবসান ঘটবে বলে প্রত্যাশা করা হচ্ছে।

রোববার কাজাখস্তানের বন্দরনগর আকতাউয়ে চুক্তিটি সম্পাদন হয়। চুক্তি অনুসারে কাস্পিয়ান সমুদ্রকে একই সাথে হ্রদ ও সাগর হিসেবে বিবেচনা করা হবে। হ্রদ হিসেবে বিবেচনা করার কারণে এর পানি পাঁচ দেশের মধ্যে সমানভাবে ভাগ করা হবে। কিন্তু সমুদ্র হিসেবে বিবেচনা করা হলে প্রত্যেক দেশ সমুদ্রের তটরেখার একটি অংশ পাবে।

গত তিন দশক ধরে দেশগুলোর মধ্যে সাগরের সম্পদ ভাগাভাগি নিয়ে বিরোধ ছিল। সমস্যাটি আদতে ছিল এই বিতর্ক নিয়ে যে, আপনি কাস্পিয়ানকে হ্রদ হিসেবে বিবেচনা করবেন নাকি সমুদ্র হিসেবে? এই চুক্তি অনুসারে, এটা আসলে কোনোটাই নয়। তাই পানির উপরিভাগ ও নিম্নভাগ নিয়ে ভিন্ন নিয়মের প্রয়োগ ঘটবে।

নিউজবিডি৭১/এম কে/আগস্ট ১৪ , ২০১৮




সৌদিতে ঈদুল আযহা ২১ আগস্ট

ডেস্ক রিপোর্ট
নিউজবিডি৭১ডটকম
ঢাকা : সৌদি আরবে ঈদুল আযহা ২১ আগস্ট মঙ্গলবার পালন করা হবে বলে ঘোষণা দিয়েছে দেশটির সুপ্রিম কোর্ট। সুপ্রিম কোর্টের ঘোষণা অনুযায়ী আজ রবিবার সে দেশে যিলহজের প্রথম দিন।

সৌদি প্রেস অ্যাজেন্সির খবরে বলা হয়েছে, দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে সেই খবর ছড়িয়ে দেওয়া হয়েছে। এছাড়া অন্যান্য আদালতেও সেই নির্দেশনা পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছে।

সৌদি গেজেটের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, সে দেশের চাঁদ দেখা কমিটির বেশ কয়েকজন নতুন চাঁদ দেখেছেন। তার পরই এ ধরনের সিদ্ধান্ত নেয় সুপ্রিম কোর্ট।

নিউজবিডি৭১/এম কে/আগস্ট ১৪ , ২০১৮




নেতানিয়াহুর মতোই ‘শিশু হত্যাকারী’বিন সালমান

ডেস্ক রিপোর্ট
নিউজবিডি৭১ডটকম
ঢাকা : ইয়েমেনের রাস্তায় চলছিল একটি বাস। যাত্রীদের বেশিরভাগই স্কুলশিশু। হঠাৎ আকাশ থেকে এসে আঘাত করলো একটি বোমা। মুহূর্তেই ছিন্ন বিচ্ছিন হয়ে গেল বাসটি। আর যাত্রীরা? কেউ সাথে সাথেই জ্বলে অঙ্গার।

বিস্ফোরিত বোমার ধোঁয়ার কুণ্ডুলি আবছা হয়ে আসতেই দেখা গেলে চারদিকে শিশুদের লাশ, শরীরের টুকরা। হাত এক জায়গা, পা অন্য জায়গায়। কারো মাথা পড়ে আছে আলগা হয়ে। কেউবা কাতরাচ্ছে শব্দহীনভাবে, কারো শরীর পড়ে আছে নিথর।

এটি ছিল গত বৃহস্পতিবার যুদ্ধবিধ্বস্ত ইয়েমেনের সা’দা প্রদেশে একটি রাস্তার দৃশ্য। স্কুল পড়ুয়া শিশুদের বহনকারী বাসে হামলা বোমা মেরেছিল সৌদি-আরব নেতৃত্বাধীন জোট।

এতে ২৯ শিশু নিহত এবং ৩০ শিশু আহত হয়েছে বলে জানিয়েছে আন্তর্জাতিক রেডক্রস কমিটি (আইসিআরসি)। বিদ্রোহী হুতি মুভমেন্ট পরিচালিত স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় মৃতের সংখ্যা সব মিলিয়ে ৪৩ এবং আহতের সংখ্যা ৬১ উল্লেখ করেছে।

রেডক্রস জানিয়েছে, প্রাদেশিক হাসপাতালে ২৯ শিশুর মৃতদেহ নেওয়া হয়েছে। তাদের সবারই বয়স ১৫ বছরের কম। এছাড়া আহত আরো ৪৮ জনকে হাসপাতালে নেওয়া হয়েছে। এদের মধ্যে ৩০ জনই শিশু।

শিশু হত্যার উপরের এমন দৃশ্য বিশ্ববাসীর কাছে নতুন নয়। বহু বছর ধরে দখলদার ইহুদীবাদী ইসরায়েলের হাতে এমন হত্যার ঘটনা ঘটেই চলেছে। বিশেষ করে দেশটির বর্তমান প্রধানমন্ত্রী বেনজামিন নেতানিয়াহু তার গত দুই মেয়াদে ক্ষমতায় থাকার সময়ে ফিলিস্তিনি সাধারণ মানুষ ও শিশুদের ওপর বর্বরতা চালিয়ে ‘শিশু হত্যকারী’ হিসেবে বিশ্বে পরিচিতি পেয়েছেন।

ইয়েমেনের সর্বশেষ ঘটনায় এত সংখ্যক শিশু হত্যার পর প্রশ্ন উঠেছে যার একক উদ্যোগে ইয়েমেন যুদ্ধে জড়িয়েছে সৌদি আরব সেই যুবরাজ বিন সালমানও কি ‘শিশু হত্যাকারী’হিসেবে চিহ্নিত হবেন না?

সবচেয়ে আশ্চর্যের বিষয় হচ্ছে, সচেতনভাবে বোমা ফেলে এতগুলো শিশু হত্যার মতো বর্বর কাণ্ড ঘটিয়েও এতটুকু ‘দুঃখিত’ নয় মুসলিম বিশ্বের কথিত নেতা সৌদি আরব! হত্যাকাণ্ডের পক্ষে সাফাই গেয়ে সৌদি জোটের মুখপাত্র কর্নেল তুর্কি আল-মালকি বলেছেন, ‘হামলাটি আন্তর্জাতিক আইন মেনে বৈধভাবেই চালানো হয়েছে। এর লক্ষ্য ছিল ওই জঙ্গিরা যারা বুধবার রাতে দক্ষিণাঞ্চলীয় সৌদি নগরী জিজানে বেসামরিক নাগরিকদের ওপর হামলার পরিকল্পনা করেছিল।’

জঙ্গিদের ওপর হামলা করতে গিয়ে স্কুলশিশুদের বহন করা বাসে হামলা এবং অন্তত ২৯ শিশু নিহত। আর বিন সালমানের নিয়োগকৃত কর্মকর্তা বলছেন, এই খুন ‘আইন সম্মতভাবেই’হয়েছে! ইসরায়েলের নেতানিয়াহুও কখনো এত শিশু হত্যার পর এমন নির্লজ্জ মন্তব্য করেছেন কিনা সন্দেহ!

হুতি মুভমেন্টের মুখপাত্র মোহাম্মদ আব্দুল-সালাম বলেছেন, কোয়ালিশন বাহিনী বেসামরিক নাগরিকের জীবনকে আমলেই নেয়নি। তারা নগরীর একটি ব্যস্ত জনসমাগম এলাকায় হামলা চালিয়েছে।

আন্তর্জাতিক আইনের আওতায় কোনো যুদ্ধক্ষেত্রে বেসামরিক নাগরিকদের অবশ্যই সুরক্ষিত রাখতে হবে বলে উল্লেখ করেছে রেডক্রস। ‘সেভ দ্য চিলড্রেন’এ হামলাকে ‘ভয়াবহ’আখ্যা দিয়ে অবিলম্বে ঘটনাটির পূর্ণ ও নিরপেক্ষ তদন্ত আহ্বান করেছে।

ইরানের মদদপুষ্ট হুতি বিদ্রোহীদের দমানোর নামে তিন বছর আগে শুরু করা ইয়েমের যুদ্ধে নিজ দেশ এবং মধ্যপ্রাচ্য কারো জন্যেই কোনো ভালো ফল এখনও এনে দিতে পারেন নি বিন সালমান।

দরিদ্র দেশটিতে ইরানের প্রভাব আগের চেয়ে একটু না কমে বরং সৌদি হামলার মুখে ক্ষতিগ্রস্ত নাগরিকরা ধীরে ধীরে ইরানের প্রতি ঝুঁকে পড়ছেন। এক কোটির বেশি মানুষ প্রতিদিন অনাহারে বা অর্ধাহারে কাটাচ্ছেন। দেশটির চিকিৎসা ব্যবস্থা ধ্বংসপ্রায়। অন্তত ২০ লাখ শিশু অপুষ্টিতে ভুগছে।

অন্যদিকে হুতিরা কোনো অংশেই আগের চেয়ে দুর্বল হয়নি। বরং গত এক বছরে তারা বেশ কয়েকবার সৌদি আরবের রাজধানী রিয়াদসহ একাধিক প্রদেশে ব্যালিস্টিক মিসাইল হামলা চালাতে সক্ষম হয়েছে, যা তিন বছর আগে কল্পনাও করা যায়নি। এতে সৌদি নিরাপত্তা বিঘ্নিত হচ্ছে।

ইয়েমেন যুদ্ধের তিন বছরের চেয়ে বেশি সময় ধরে এখনও উল্লেখ করার মতো কোনো সাফল্য না পেলেও সম্ভবত একটি সাফল্য ইতোমধ্যে অর্জন করেছেন সৌদি যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমান। আর তা হলো ‘শিশু হত্যাকারী’ এর উপাধি।

নিউজবিডি৭১/এম কে/আগস্ট ১৪ , ২০১৮